জেএনইউ-তে হামলার প্রতিবাদে একাধিক মিছিলে উত্তেজেনা ছড়াল যাদবপুরে। সোমবার বিকেলে বিজেপির সিএএ অভিনন্দন যাত্রার মুখোমুখি এসে পড়ে যাদবপুরের পড়ুয়াদের প্রতিবাদ মিছিল। সুলেখা মোড়ে যা ঘিরে উত্তেজনার  সৃষ্টি হয়। যার মধ্য়ে সিপিএম-এর ধিক্কার মিছিল এসে পৌঁছলে গোল বাঁধে এলাকায়। 

বিজেপির সঙ্গে যাদবপুরের পড়ুয়াদের সংঘর্ষ এড়াতে মোতায়েন করা হয় বিশাল পুলিশ বাহিনী। যদিও দু তরফের কটূক্তিতে এক সময় হাতাহাতির উপক্রম হয়। যাদবপুরের পড়ুয়াদের অভিযোগ, বিজেপির মিছিল থেকে বার বার পাকিস্তানের নাম করে তাদের কটূক্তি করা হয়। গেরুয়া বাহিনীর তরফ থেকে উস্কানিমূলক বক্তব্য় শুনে এগিয়ে আসে পড়ুয়ারা। তখনই তাদের সামাল দেয় পুলিশ। উত্তেজিত ছাত্রদের সামাল দিতে লাঠিচার্জ করতে হয় পুলিশকে। 

এদিন অনুপম হাজরার নেতৃত্বে বাঘাযতীন থেকে যাদবপুর থানার উদ্দেশ্যে একটি মিছিল শুরু হয়। পরে সুলেখা মোড়ে এলে আটকে দেওয়া হয় সেই মিছিল। অপরদিক থেকে এসএফআই এবং যাদবপুরের পড়ুয়াদের একটি মিছিল  সুলেখার দিকে আসে। সেখানেও পুলিসের ব্য়ারিকেডে আটকানো হয় মিছিল। ফলে  সন্ধে সাতটার দিকে সিপিএম ও যাদবপুরের ছাত্র ছাত্রীদের মুখোমুখি হয় গেরুয়া বাহিনী। 

মিছিল শেষ হয়ে হলেও বিজেপির লোকজনকে রাস্তায় দেখে দ্রুত মাইকিং করে চলে যেতে বলে পুলিশ। কিন্তু সময় পেরিয়ে গেলেও এলাকায়  টায়ার জ্বালিয়ে স্লোগান দিতে থাকে বিজেপির নেতাকর্মীরা। সেসময় পুলিশ পেরিয়ে বিজেপির দিকে যেতে চায়  পড়ুয়ারা। তখনই পুলিসের সঙ্গে তাঁদের ধস্তাধ্বস্তি বাঁধে। ছাত্রদের অভিযোগ , এরপরই তাদের  লাঠিচার্জ করে পুলিশ । যদিও পরে পুলিশের এক আধিকারিক এই ঘটনার জন্য ক্ষমা চান। তিনি বলেন,পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে পুলিসের সঙ্গে ছাত্রদের ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। এই ঘটনার জন্য় তারা দুঃখিত।