রাজ্য়ে শাসক  দলের সঙ্গে অসাধু যোগসাজশ তৈরি করা হয়েছে। পুলিশ প্রশাসন এখানে তৃণমূলের নেতা কর্মীদের মতো আচরণ করছে। পশ্চিমবঙ্গে বিজেপিকে রুখতে শে, সম্বলটুকু বাকি রাখছেন না মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। দমদমে প্রতিবাদ মিছিলে এসে এমনই বার্তা দিলেন বিজেপির ব্য়ারাকপোরের সাংসদ অর্জুন সিং।

এদিন তিনি বলেন, এলাকায় সন্ত্রাস মিথ্যা মামলায় বিজেপি কর্মীদের ফাঁসানো হচ্ছে। বিজেপির সমস্ত রাজনৈতিক কর্মসূচিকে বানচাল করতে তৃণমূল কংগ্রেস ও পুলিশের যৌথ প্রয়াস রাজ্য়বাসীর নজরে পড়ছে। এর প্রতিবাদে রবিবার দমদমে বিক্ষোভ সমাবেশ ও প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে বিজেপি। সেই প্রতিবাদ সভায় হাজির হন বারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং। 

অর্জুন সিং-এর অভিযোগ, তাঁকে আটকানোর জন্য পুলিশ নানা ষড়যন্ত্র করেছে। কিন্তু হাজার হাজার বিজেপি কর্মী সমর্থক বাড়তে থাকায় এখন পুলিশ পিছু হটতে বাধ্য হচ্ছে। এদিন দমদমেও তাকে  আটকানোর চেষ্টা হয়েছিল। বিজেপির বাহুবলীর দাবি, শাসক দল ছাড়া রাজ্যের কোনও অঞ্চলে বিরোধী কোনও দল তাদের কর্মসূচি নিতে পারছে না। তৃণমূলের সরকার মানুষের সংবিধান প্রদত্ত মৌলিক অধিকারটুকু কেড়ে নিয়েছে। 

তবে এর বিরুদ্ধে ক্ষোভ বাড়ছে। অক্টোবরের পর আরও জোরদার হবে বিজেপির আন্দোলন-সংগ্রাম। এদিনের জমায়েতে ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চল থেকে কয়েক হাজার মানুষ যোগ দেন । তৃণমূলের অভিযোগ, বাইরে থেকে বহিরাগত দুষ্কৃতীদের নিয়ে অর্জুন সিংহ দমদম এলাকায় সন্ত্রাস কায়েম করতে চাইছে। স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন তা আটকানোর চেষ্টা করেছে মাত্র।