এতদিন তাঁকে সাক্ষী হিসাবে ডাকছিল সিবিআই। বার বার ডেকে কাজ না হওয়ায় রাজীব কুমারকে অভিযুক্ত হিসাবে দেখাতে চলেছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। ফলে সরাসরি এবার রাজীবকে গ্রেফতারের জন্য আবেদন জানাচ্ছে সিবিআই।

বার বার নোটিশ দিয়েও কাজ হয়নি। আইনি জটে বহুবার রাজীব কুমারকে তলব করেও দেখা পাননি সিবিআইয়ের অফিসাররা। সাম্প্রতিক তলবের পর ইমেল মারফত রাজীব জানান, ব্য়ক্তিগত ছুটিতে বাইরে রয়েছেন। তাই তাঁকে হাজিরার জন্য আরও কিছুদিন সময় দেওয়া হোক। যারপরই আর ধৈর্য ধরেনি কেন্দ্রীয গোয়েন্দা সংস্থা। মঙ্গলবারই সিবিআই রাজীবকে অভিযুক্ত দেখিয়ে গ্রেফতারির আবেদন করে বারাসতের বিশেষ আদালতে। কিন্তু তাতে নিষ্পত্তি না হওয়ায় বুধবার ফের আলিপুর আদালতে রাজীবকে গ্রেফতারের আবেদন করতে পারে সিবিআই।

সেবায় ব্রতী, প্রবীণার পা ধুইয়ে দিলেন ভারতী ঘোষ

পুজোর উদ্বোধনে আসছেন অমিত, প্রচার করবেন এনআরসি নিয়েও

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার রাত থেকে দফায় দফায় দিল্লির আধিকারিকদের সঙ্গে রাজ্য়ের সিবিআই আধিকারিকদের বৈঠক হয়। সেখানে কেন রাজীব কুমারকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না , তা নিয়ে প্রশ্ন করেন দিল্লির কর্তারা। সিবিআইয়ের নিজস্ব সোর্স কী করছে তাও জানতে চাওয়া হয় রাজ্য়ের কর্তাদের কাছে। জানা গেছে, দিল্লির কর্তাদের  কথা মেনে আজ আলিপুর এসিজেএম কোর্টে রাজীবের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানার আবেদন করতে পারে সিবিআই। তবে আলিপুর আদালতে আজ শুনানির সম্ভাবনা কম। যেহেতু বারাসত আদালতে সারদা মামলার কেস ডায়েরি রয়েছে তাই সেই নথি আলিপুরে আসতে সময লাগবে। বৃহস্পতিবার এই মামলার শুনানি হলেও হতে পারে।

মালদহে এনআরসি গুজব, আতঙ্কে বিডিও অফিসে উপচে পড়ছে ভিড়

কেউ রখা রাখেনি, উরি-তে শহিদ বিশ্বজিৎ-এর পরিবারের এক সত্য কাহিনি

গতকালই দুটি মামলা বারাসতের আদালতে উঠেছিল। যার মধ্য়ে একটি মামলা করেছিলেন রাজীব কুমার। অন্যটি সিবিআইয়ের তরফে মামলা ফাইল করা হয়। বারাসত আদালতে আগাম জামিনের মামলা করেছিলেন রাজীব কুমারের আইনজীবী।  পাশাপাশি রাজীবকে জামিন অযোগ্য ধারায গ্রেফতারির আবেদন করে সিবিআই। দুটি মামলাই 'নন মেন্টেনেবল' বলে আলিপুর আদালতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। যারপর থেকেই রাজীবকে গ্রেফতার করতে তোড়জোড় শুরু করেছেন সিবিআইয়ের আধিকারিকরা। সারদা মামলায় রাজীবের বিরুদ্ধে তথ্য়প্রমাণ লোপাটের অভিযোগ এনেছে সিবিআই।