সিইএসসি-র চড়া বিলে কামঘাম ছুটছে গ্রাহকদের। গ্রাহকদের উদ্দেশ্য়ে সিইএসসি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, লকডাউনের সময় অনাদায়ী বিল এবার  গ্রাহকদের থেকে ছোট ছোট কিস্তিতে আদায় করা হবে। নভেম্বর মাসের বিল থেকেই সেই কিস্তি যোগ হতে শুরু করেছে।

আরও পড়ুন, 'তৃণমূলের বুড়ো নেতাদের লজ্জা নেই-অন্যের বউ নিয়ে পালাচ্ছে', সুজাতাকে নিয়ে চিন্তায় দিলীপ


সিইএসসি-র তরফে জানানো হয়েছে, লকডাউনের সময় অনাদায়ী বকেয়া বিল ১০টি কিস্তিতে  আদায় করা হবে। এমনিতেই শীতকালে বিদ্যুতের কম ব্যবহার হয়। তাই বিলও কম আসে। এইসময়েই ছোট ছোট কিস্তিতে বকেয়া বিলের পরিমাণ আদায় করলে গ্রাহকদের উপরে চাপ পড়বে না বলে দাবি সিইএসসি কর্তৃপক্ষের। কীভাবে বিলের অঙ্ক নির্ধারণ করা হবে, তা সবিস্তারে দেওয়া থাকবে বিলেই।

আরও দেখুন, Election Live Update- 'রবীন্দ্রনাথকে ব্যবহার করছে তৃণমূল', তীব্র আক্রমণ দিলীপের

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ফের সিইএসসি-র চড়া বিল নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন একাধিক গ্রাহক। অভিযোগ, একমাসে দুটি বিলও এসেছে। এদিকে আমজনতার ক্ষোভের আগুন নেভাতে সিইএসসি জানিয়েছে, মার্চ থেকে জুন মাস অবধি লকডাউনের সময় মিটার রিডিং নেওয়া যায়নি। গ্রাহকদের পুরোনো বিলের গড় অঙ্ক হিসেব করেই বিল পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু চড়া বিলের অভিযোগ উঠতেই হস্তক্ষেপ নেয় রাজ্য সরকার। রাজ্যের হস্তক্ষেপের ফলেই ওই কয়েকমাসের বিল স্থগিত রাখে সিইএসসি।