করোনা নিয়ে গবেষনায় এক নতুন আশঙ্কার তথ্য এল উঠে। এতদিন করোনায় সবচেয়ে সুরক্ষিত শিশুরা বলে দাবি করা হচ্ছিল। এবার সে ভরসার ভাঙল বাঁধ। শিশুদেররই সুপার স্প্রেডার বলে দাবি করল আইসিএমআর।

 

 

আরও পড়ুন, পুজোর পরেও করোনায় কাহিল কলকাতা, ব্যর্থতার খেতাব জিতে ফের শীর্ষে মহানগর

 

করোনায় ৮ শতাংশের বয়েস ১৭ বছরের নীচে

আইসিএমআর এর জেনারেল ভার্গবের কথায়, শিশুদের নিয়ে ধারণা এবার পাল্টাতে হবে। শিশুরা ব্য়াপক হারে করোনা সংক্রমণ ছড়াতে পারে। চিকিৎসায় উঠে এসেছে মোট সংক্রমিতের সংখ্য়ার ৮ শতাংশের বয়েস ১৭ বছরের নীচে। আরও ৫ বছর বয়েস কম যাদের, তাঁদের আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা ১ শতাংশেরও কম। তবে কেন সুপার স্প্রেডার বলা হচ্ছে শিশুদের। 

 

আরও পড়ুন, বরিশা ক্লাবের পরিযায়ী দুর্গা মায়ের বিসর্জন হবে না, সংরক্ষণের নির্দেশ মমতার

 

 

 কেন সুপার স্প্রেডার বলা হচ্ছে শিশুদের 

আর এখানের মিজোরামের উদাহরণ টেনেছে আইসিএমআর। মিজোরামে এখনও পর্যন্ত ৩১৫ জন শিশু করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। তবে আশার আলো এটা, অন্য়ান্য দেশের মতো ভারতে করোনা আক্রান্ত শিশুর মধ্যে এখনও কাওয়াসাকি ডিজিজ দেখা যায়নি। পাশপাশি,শিশুদের সুপার স্প্রেডার  বলার আরও একটা কারণ হল, আমেরিকায় জুলাই মাসে স্কুল খুলতেই দু সপ্তাহের মধ্যেই আক্রান্ত হয় লক্ষাধিক শিশু।

 

আরও পড়ুন, সুব্রতকে সরিয়ে সাধারণ সম্পাদক অমিতাভ, বাংলা বিজেপির সাংগঠনিক পদে বড়সড় রদবদল