বন্ধ চিংড়িহাটা উড়ালপুল। যার জেরে শুক্রবার রাত থেকেই প্রবল যানজট ই এম বাইপাসের বড় অংশ জুড়ে। এখনও পর্যন্ত যা খবর, তাতে সোমবার সপ্তাহের প্রথম কাজের দিনেও প্রবল যানজট হতে পারে বাইপাসে। তার কারণ পুলিশ অনুরোধ করলেও সোমবার দুপুরের আগে উড়ালপুল খুলে দিতে পারবে না কেএমডিএ। 

শহরের একাধিক উড়ালপুলের মেরামতি এবং স্বাস্থ্য পরীক্ষার কাজ করছে কেএমডিএ। সেই কারণেই গত শুক্রবার থেকে বন্ধ রাখা হয়েছিল বাইপাস থেকে সেক্টর ফাইভ এবং নিউটাউন গামী চিংড়িহাটা উড়ালপুল। প্রাথমিকভাবে শুক্রবার রাত থেকে সোমবার রাত সাড়ে ন' টা পর্যন্ত উড়ালপুল বন্ধ রাখার কথা বলেছিল কেএমডিএ। কিন্তু উড়ালপুল বন্ধ করার জেরে সপ্তাহান্তেও প্রবল যানজট হয়েছে বাইপাসে। সায়েন্স সিটি থেকে বেলেঘাটা কানেক্টর পর্যন্ত যানজট ছড়িয়ে পড়েছে। যানজট ছড়িয়েছে পরমা উড়ালপুলেও। অন্যদিকে ই এম বাইপাস থেকে শিয়ালদহ বা সেক্টর ফাইভগামী রাস্তাতেও গাড়ির দীর্ঘ লাইন দেখা গিয়েছে।

ছুটির দিনেই এই অবস্থা হলে সপ্তাহের প্রথম কাজের দিন উড়ালপুল বন্ধ থাকলে কী অবস্থা হবে, তা ভেবেই তৎপর হয় কলকাতা পুলিশ। সোমবার সকাল ন' টার মধ্যেই উড়ালপুল খুলে দেওয়ার জন্য কেএমডিএ- কে অনুরোধ করা হয়। কিন্তু কেএমডিএ জানিয়ে দিয়েছে, সকাল সাড়ে এগারোটার আগে কোনওভাবেই কাজ শেষ করা সম্ভব নয়। তার পরেই খোলা হবে উড়ালপুল। ফলে সোমবারও বাইপাসে প্রবল যানজটের আশঙ্কা থাকছে। 

অন্যদিকে চিংড়িহাটা উড়ালপুলের পরে আগামী সপ্তাহে বালিগঞ্জ স্টেশনের উপরে বিজন সেতুও বন্ধ রেখে কাজ করার জন্য পুলিশের কাছে অনুমতি চেয়েছিল কেএমডিএ। কিন্তু পুজোর কেনাকাটা এবং মহরমের ভিড় ও শোভাযাত্রার কথা মাথায় রেখে সেই অনুমতি দেয়নি পুলিশ। ফলে আপাতত খোলাই থাকছে ব্যস্ত বিজেন সেতু।