বাংলায়  কোভিড আক্রান্ত প্রবীণদের মৃত্যুর  অন্যতম কারণ হয়ে দাড়াচ্ছে কোমর্বিডিটি। পরিসংখ্যান এমনই বলছে। এমনকি হাইপারটেনসনও এর আরও একটি কারণ। রাজ্য়ের সিএফআর অর্থাৎ প্রবীণ জনগোষ্ঠীর কোভিড কেসের মৃত্যুর হার সামগ্রিক হ্রাসের সঙ্গে মিলেছে।

আরও পড়ুন, শুধু কলকাতাতেই করোনা আক্রান্ত ১ লাখ ছুঁইছুঁই, বাংলায় মৃত্যু পেরোল ৮ হাজার

 


 

 

 কিডনির উপর প্রভাব

প্রবীণ জনগোষ্ঠীর মধ্যে বাংলার কোভিড প্রাণহানির একটি সমীক্ষা থেকে মিলেছে যে,  জুন থেকে নভেম্বর পর্যন্ত সিএফআর -এ ১০ শতাংশ হ্রাস প্রকাশ পেয়েছে। এই সমীক্ষার রেজাল্ট প্রকাশ পেতেই বিশ্লেষণে একটি রিপোর্ট উঠে এসেছে। যার মূল বক্তব্য হল, কোমর্বিডি কোভিড রোগীর বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ছিল হাইপারটেনসন, ডায়াবেটিস এবং হৃদ রোগই  মৃত্যুর কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। দীর্ঘদিনের কিডনি রোগও এই সময় ক্যাটালিস্টের কাজ করছে। অথবা  কোমর্বিডি কোভিড আক্রান্ত প্রবীণদের ক্ষেত্রে কিডনির উপর প্রভাব ফেলছে। 

আরও পড়ুন, ট্রপিক্যালে করোনা টিকা-পরীক্ষার অনুমতি, কী খবর সাগর দত্ত মেডিক্যালের

 

 

 অন্যতম কারণ সিওপিডি

কোভিডের মৃত্যু কারণ খুঁজতে গিয়ে সমীক্ষায় আরও এখটি রিপোর্ট উঠে এসেছে কোমর্বিড প্রবীণদের ক্ষেত্রে। বেশিরভাগ ঝুঁকিটাই থাকছে যাদের বয়েস ৬০ থেকে ৭৫ এবং ৭৫ বছর বয়েসের উর্ধ্বে। তবে অধীকাংশ প্রবীণদের মৃত্যুর ক্ষেত্রে অন্যতম কারণ সিওপিডি। বাংলায় কোভিডের মৃত্যুতে কার্ডিয়াকের অসুস্থতা কমে পুরুষদের ক্ষেত্রে ১৯ শতাংশ থেকে ১০.৯ শতাংশে এসে দাড়িয়েছে। মহিলাদের ক্ষেত্রে, ১৮ শতাংশ থেকে ৮.৬ শতাংশ। কোভিড-ডায়াবেটিক পুরুষ রোগীর ক্ষেত্রে সেটা বেড়ে ১৯ শতাংশ থেকে ২৩.৮ শতাংশ এবং মহিলাদের ক্ষেত্রে ২০ থেকে ২৫ শতাংশে দাঁড়িয়েছে।