Asianet News BanglaAsianet News Bangla

করোনা ভয়ে কাঁপছে বাঙুর হাসপাতাল, বেলেঘাটা আইডিতে ভরতি আক্রান্তের চিকিৎসক

  • বেলেঘাটা আইডিতে ভরতির আগে বাঙুরে
  • করোনা আক্রান্তের গতিবিধিতে চিন্তায় হাসপাতাল
  •  বেলেঘাটায় ভর্তি হয়েছেন আক্রান্তের চিকিৎসক
  •  কারা ওই তরুণের কাছে ছিলেন শুরু হয়েছে তার খোঁজ  
Corona infected patients doctor admitted in Beleghata ID
Author
Kolkata, First Published Mar 18, 2020, 5:38 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

বেলেঘাটা আইডিতে ভরতি  হওয়ার আগে কলকাতার এমআর বাঙুর হাসপাতালে গিয়েছিলেন রাজ্য়ের প্রথম করোনা আক্রান্ত তরুণ। মঙ্গলবার তাঁর শরীরে করোনা পজিটিভ পাওয়া যেতেই ভয় কাঁপছে বাঙুর হাসপাতাল। তড়িঘড়ি বেলেঘাটায় ভর্তি হয়েছেন আক্রান্তের চিকিৎসক। কারা  ওই তরুণের কাছে ছিলেন তা নিয়েও শুরু হয়েছে জোর জল্পনা। 

বিমানবন্দরে 'ফাঁক গলে' কলকাতার তরুণের করোনা, কেন অধরা ভাইরাসের উপসর্গ

জানা গিয়েছে, সোমবার বেলা ১টা নাগাদ মায়ের সঙ্গে বাঙুর হাসপাতালে যায় ওই তরুণ। আক্রান্তের মা উচ্চপদস্থ আমলা হওয়ায় সরাসরি ডেপুটি সুপারের ঘরে বসেছিল োই তরুণ। পরে স্টেথো দিয়ে চলে তার পরীক্ষা। এরপরই তরুণকে বেলেঘাটা আইডিতে ভরতির পরামর্শ দেন চিকিৎসক। পরে তরুণের লালার নমুনা পরীক্ষা করে Covid-19 পজিটিভ পাওয়া যায়। 

নবান্নে করোনা আতঙ্ক, হোম কোয়ারেন্টাইন-এ গেলেন সস্ত্রীক স্বরাষ্ট্রসচিব

সেই সময় থেকেই পরীক্ষাকারী ডাক্তার ছাড়াও তার সহায়ককে বেলেঘাটা আইডিতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এমনকী ডেপুটি সুপারের ঘরটিকেও জীবাণুমুক্ত করার প্রক্রিয়াও শুরু হয়ে গিয়েছে। সম্প্রতি কলকাতায় ধরা পড়েছে রাজ্য়ের প্রথম করোনা আক্রান্ত। ইংল্যান্ড থেকে কলকাতায় ফিরে বাড়িতে ছিল সেই তরুণ। কলকাতা বিমানবন্দর জানিয়েছে, ওই তরুণের দেহে করোনার উপসর্গ পাওয়া যায়নি।  

মাঝ পথেই বন্ধ শ্যুটিং, ইংল্যান্ড থেকে ফিরতেই ১৪ দিনের আইসোলেশনে মিমি-জিৎ

এ বিষয়ে কলকাতা বিমানবন্দরের স্বাস্থ্য় অধিকর্তা জানান, করোনা প্রভাবিত সাতটি দেশের যাত্রীদের মূলত পরীক্ষা করা হচ্ছে। এই সাত দেশের তালিকায়  রয়েছে,চিন ,কোরিয়া, জাপান, জার্মানি, স্পেন, ইতালি, ইরান। ইংল্যান্ডের নাম এতদিন সেই তালিকায় ছিল না। এই সব দেশের যাত্রীদের শরীরে করোনার  উপসর্গ দেখলেই সরাসরি পাঠানো হচ্ছে বেলেঘাটা আইডিতে। কিন্তু তরুণের ক্ষেত্রে শরীরে কোনও উপসর্গ না মেলায় এমনিতেই তাকে বাড়িতে আলাদাভাবে থাকতে হত। কিন্তু সোমবার থেকে সবার জন্য় রাজেয়ের উদ্য়োগে করোনা ভাইরাসের পরীক্ষা ব্য়বস্থা চালু হয়েছে।

এদিকে ছেলের মা আমলা হওয়ায় তরুণ বাড়তি সুবিধা পেয়েছিল কিনা তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। ছেলের শরীরে উপসর্গের কথা জানতে পেরেও নবান্নে ছিলেন তরুণের মা। যার জেরে বুধবার নবান্নে চলছে স্যানিটাইজেশন অভিযান। জানা গিয়েছে, নবান্নে স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্য়োপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করেছিলেন তাই হোম কোয়রান্টিনে গিয়েছেন স্বরাষ্ট্রসচিব। যার জেরে করোনা আক্রান্ত  তরুণের মায়ের ওপর চটেছেন অনেকেই। সূত্রের খবর, এ নিয়ে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে তাঁকে। 

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন,স্পেশাল আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে ওই তরুণকে। তবে একা তরুণ নন, তাঁর পরিবার ওই তরুণের যাঁরা সংস্পর্শে এসেছেন তাঁদেরও নজরদারির মধ্য়ে রাখা হয়েছে। তরুণের পাশাপাশি তার মা-বাবা ও গাড়িচালককে বেলেঘাটা আইডিতে কোয়েরেন্টিনে রাখা হয়েছে৷ জানা গিয়েছে,ওই তরুণ ইংল্যান্ডে একটি বার্থডে পার্টিতে যোগ দিতে গিয়েছিলেন। কলকাতায় ফিরে জানতে পারেন করোনায় আক্রান্ত  ছিল  তার বান্ধবী। যদিও ইংল্যান্ড থেকে কলকাতা বিমানবন্দরে নামলেও তার শরীরে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ ধরা পড়েনি। জ্বর, সর্দি, কাশি এমনকী শ্বাসকষ্টের কোনও লক্ষণ দেখা যায়নি ওই তরুণের শরীরে। তাই বান্ধবীর কথা জানতে পেরে বাড়িতেই আলাদা ছিলেন ওই তরুণ।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios