করোনা আক্রান্ত দিলীপ ঘোষের ফুসফুসে সংক্রমণ দেখা দিয়েছে। তবে কতদূর অবধি সেটা ছড়িয়ে তা চিকিৎসকরা এখনও জানতে পারেননি। সেই রিপোর্ট হাতে না আসা অবধি উদ্বেগ রয়েছে চিকিৎসকদেরও। রিপোর্ট পাওয়ার পরই পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

 

 

আরও পড়ুন, 'আদৌ করোনা হয়েছিল তো ছত্রধরের', আদালতে গরহাজির হতেই চটে লাল NIA

 

ফুসফুসে সংক্রমণ হতেই থ্রোক্স সিটি স্ক্য়ান করা হল দিলীপ ঘোষের


করোনা আক্রান্ত হয়ে ধুম জ্বর নিয়ে সল্টলেকের বেসরকারি হাসপাতালে শুক্রবার রাতে ভর্তি হন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। জ্বর নামলেও ধরা পড়ে ফুসফুসে সংক্রমণ। তারপর শনিবার থ্রোক্স সিটি স্ক্য়ান করা হয়। এখন সেই রিপোর্ট এলেই পরবর্তী কী পদক্ষেপ নেওয়া হবে, তার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। শুক্রবার রাতে হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়েছিল, তাঁর অক্সিজেনের মাত্রা ঠিক আছে। কোনও  কোমর্বিডিটিও নেই বিজেপির রাজ্য সভাপতির। কিন্তু তারপরে পরেই ফুসফুসে সংক্রমণ হয়। প্রসঙ্গত, সোমবার থেকেই অসুস্থ ছিলেন দিলীপ ঘোষ। জ্বর আসায় বাতিল করেছিলেন সভা-অনুষ্ঠান। তারপরেই তিনি করোনা পরীক্ষা করান। এবং রিপোর্ট পজিটিভ আসে।  শুক্রবার থেকে প্রবল জ্বরে কাবু হয়ে পড়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। 

 

 

আরও পড়ুন, সকালেই বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সতর্কতা দক্ষিণ ২৪ পরগণায়, ভিজবে কলকাতাও

 

দলের তরফ থেকেও নেওয়া হচ্ছে তাঁর সমস্ত খোঁজ-খবর

 
 উল্লেখ্য,  এর আগে বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়, মহিলা মোর্চার সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল, বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ একাধিক বিজেপি নেতা-নেত্রী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।  দিনকয়েক আগে দিলীপ ঘোষের নিরাপত্তারক্ষী-সহ চালকও করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। আর এবার দলের রাজ্য সভাপতির করোনা আক্রান্তের খবর আসতেই উদ্বিগ্ন বিজেপি নেতা-কর্মীরা। দলের তরফ থেকেও নেওয়া হচ্ছে তাঁর সমস্ত খোঁজ-খবর।