ঝড়ের এমন তাণ্ডবলীলা শেষ কবে দেখেছেন কলকাতাবাসী তা মনে করতে পারছেন না অনেকেই। সুপার সাইক্লোনের তাণ্ডবে এককথায় তছনছ শহর তিলোত্তমা। বৈশ্বিক মবামারী করোনার থেকেও ঘূর্ণিঝড় আমফানকে বড় বিপর্যয় বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

শহর কলকাতা পুরোপুরি লন্ডভন্ড। কোথাও রাজপথের সামনে মুখ থুবড়ে পড়ে রয়েছে গাছ, কোথাও মিনিবাসের উপর ভেঙে পড়েছে বড় গাছ। আবার কোথাও হাঁটু সমান জল শহরের পথে। 

 

 

আমফান প্রাণ কেড়েছে এই শহরেও। ১৩৩ কিমি বেগে বয়ে যাওয়া ঝড়ের কারণে  রিজেন্ট পার্কে গাছ পড়ে মা-ছেলের মৃত্যু হয়েছে। নবান্নে ভেঙেছে দরজা। 

এয়ারপোর্ট রোডে আমফানের তাণ্ডবে ভেঙে পড়ে একের পর এক বড় গাছ। রাতেই সেই গাছ সরায় এনডিআরএফ।

 

 

ঝড়ের তাণ্ডবে শহরের বহু জায়গাতেই গাছ ভেঙে পড়েছে। 

 

 

তবে দুর্যোগ এখনও কাটেনি। আজও শহরে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিচ্ছে আবাহওয়া দফতর।