করোনা আতঙ্কের মধ্যেই এবছর বাঙালির দুর্গোৎসব। সোমবার ইতিমধ্যেই কলকাতায় চেতলা অগ্রণী ক্লাবের পুজো উদ্বোধন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। পুজো শুরু নয় দিন আগেই দুর্গা প্রতিমার চক্ষুদানও হয়। আর এদিনই নবান্ন থেকে পুজোর সময় করোনা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। করোনা সতর্কবিধি মানতে পুজো কমিটিগুলিকে কড়া নির্দেশ দিলেন মমতা।

আরও পড়ুন-করোনা আবহে কী অবস্থায় পুরুলিয়াবাসী, পরিস্থিতি খতিয়ে দেখলেন জেলাশাসক

নবান্ন থেকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, করোনা সংক্রমণ বাড়ছে। সংক্রমণ আটকাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। পুজোর শুরু থেকে করোনার সতর্কবার্তা প্রচার করতে হবে পুজো কমিটি গুলিকে। মাস্ক না পরলে দর্শনার্থীদের প্য়ান্ডেলে ঢুকতে পারবেন না বলে নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রয়োজনে প্যান্ডেলে ঢোকার মুখে মাস্ক ও স্যানিটাইজার দেওয়ার পরামর্শ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি, পুজোর সময় নবান্ন ও স্বাস্থ্য ভবনে চব্বিশ ঘণ্টা হেল্পলাইন চালু থাকবে বলে জানিয়েছেন  রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্য়োপাধ্য়ায়।

আরও পড়ুন-পুজোর ঢাকে পড়ল কাঠি, চেতলা অগ্রণী ক্লাবে পুজোর উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী

দুর্গা পুজোর পর করোনা সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কা থাকায় উদ্বেগে রাজ্য সরকার। তার জন্য পুজোর আগেই সমস্ত সরকারি কোভিড হাসপাতাল গুলিতে শয্যা সংখ্যা বাড়ছে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী । পাশাপাশি, রোগী পরিষেবা স্বাভাবিক রাখতে আরও আড়াই হাজার নার্সের সংখ্যা বাড়ানো হবে বলে জানান মমতা। পাশাপাশি, বাংলায় করোনা গোষ্ঠী সংক্রমণের আশঙ্কা প্রকাশ করলেন তিনি। বাতাসেও করোনাভাইরাস ছড়াচ্ছে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী। 

আরও পড়ুন-করোনায় থাবায় ভার্চুয়ালে পুজো উদ্বোধন মুখ্যমন্ত্রীর, কোন দিন-কোন ক্লাবের পুজো উদ্বোধন মমতার

পুজোর সময় করোনা মোকাবিলায় বিশেষ সতর্কবার্তা দেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, সবাই সতর্ক থাকতে হবে। উৎসবের সময় স্বাস্থ্যবিধি যতটা সম্ভব মেনে চলুন। কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে। বাতাসেও ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস। মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রীর।