গরু পাচার কাণ্ডে বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালাচ্ছেন গোয়েন্দারা। এবার মূল অভিযুক্ত এনামূল হকের কলকাতার দুটি অফিসে তল্লাশি চালায় ইডির আধিকারিকরা। সোমবার সকালে কলকাতার বেটিঙ্ক স্ট্রিটের একটি বহুতলে তদন্তে যায় ইডি-র প্রতিনিধিরা। এনামূলের অফিস থেকে বেশ কিছু নথিপত্র সংগ্রহ করে। এর থেকে গরু পাচার কাণ্ডে নতুন তথ্য মিলতে পারে বলে অনুমান গোয়েন্দাদের।

আরও পড়ুন-ডাক্তার দেখাতে যাওয়ার পথে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, ১ মহিলা-সহ মৃত ৩, জখম আরও ৪ জন

কয়লা পাচার কাণ্ডে অভিযুক্ত লালার খোঁজে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি শুরু করেছে ইডি। একইদিনে গরু পাচার চক্রের তদন্তে সক্রিয় ইডিও। গরু পাচার কাণ্ডে মূল অভিযুক্ত এনমূল হকের অফিসে তল্লাশি চালায় ইডি আধিকারিকরা। কলকাতার বেন্টিঙ্ক স্ট্রিটের দুটি অফিসে তল্লাশি চালানো হয়। সূত্রের খবর, কয়লা ও গরু পাচারের তদন্তে বেশ কিছু নাম পেয়েছে গোয়েন্দারা। দুটি মামলাতেই নাম রয়েছে এনামূল হক ও লালার। 

আরও পড়ুন-'মিথ্যে বলার জুড়ি নেই', BJP কে তোপ দিতে গিয়ে ভানুর প্রসঙ্গ তুললেন মমতা

সীমান্তে গরু পাচার চক্রে এনামূলের সঙ্গে যোগসাজেশে বিএসএফ কমান্ড্য়ান্চ সতীশ কুমারকে আগেই গ্রেফতার করা হয়েছে। বিএসএফের কর্তাকে গ্রেফতারের পর সীমান্তরক্ষী বাহিনীর আরও কয়েকজন আধিকারিক এই চক্রে জড়িত থাকতে পারে বলে জানতে পেরেছে গোয়েন্দারা। এই দুটি মামলায় সিবিআই যেমন ষড়যন্ত্রের বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। অন্যদিকে, আর্থিক তছরূপের বিষয়টিও দেখছে গোয়েন্দারা।