চিকিৎসক নিগ্রহের ঘটনায় চিকিৎসক সমাজ উত্তাল। গত সোমবার বিকেলে এক রোগী মৃত্যুর পর বেনজির আক্রমণ নেমে আসে চিকিৎসক পরিবাহ মুখোপাধ্যায়ের ওপর। তার জেরেই রাজ্য জুড়ে আন্দোলনের পথে গিয়েছেন চিকিৎসকেরা। মুখ্যমন্ত্রী এ যাবৎ কোনও বিবৃতি দেননি। কিন্তু স্বাস্থ্য দফতর থেকে বারবার চিকিৎসকদের অনুরোধ করা হয়েছে কর্মবিরতি তুলে নেওয়ার জন্যে। গোটা ঘটনাই চিকিৎসক বনাম প্রশাসন পর্য়ায়ে চলে গিয়েছে। এই লড়াইয়ে এবার চিকিৎসকদের পাশে দাঁড়ালেন পুর ও নগোরন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের মেয়ে সাব্বা হাকিম।

সাব্বা নিজের ফেসবুকে লিখেছেন, ' সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে আউটডোর বয়কট করেছেন চিকিৎসকেরা। জরুরি বিভাগে কিন্তু কাজ হচ্ছে। মানবিকতার কারণে আমরা অন্য পেশাদারদের মতো কাজ বন্ধ করতে পারিনা। আজ সকলেই জানতে চাইছেন, বাকি রোগীরা কী দোষ করল।  কিন্তু আপনারা সরকারের কাছে জানতে চান, দুই ট্রাক গুন্ডা সরকারি হাসপাতালে ঢুকে ডাক্তার পেটাল, তখন পুলিশ পাঠানো হল না কেন। কেন হাসপাতাল চত্বরে বারবার ঘুরে বেড়াচ্ছে গুন্ডারা? 
 

প্রসঙ্গত সাব্বাও পেশায় ডাক্তার। যাদবপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতাল থেকে ডাক্তারি পাশ করেছেন সাব্বা।  তাঁর প্রশ্ন ইতিমধ্যেই ছড়াতে শুরুর করেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সাব্বার বাবা ফিরবহাদ হাকিম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অন্যতম ভরসাস্থল। কাজেই তাঁর বার্তার তাৎপর্যও অন্য। 

প্রসঙ্গত গত দিন দফায় দফায় বৈঠক করেও কোনও সমাধান সূত্র মেলেনি প্রশাসনের তরফে। চিকিৎসকদের কর্মবিরতির ঘটনায় রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা বেহাল। ইতিমধ্যে রাজ্যে মৃত্যুরও খবর আসছে। স্বাস্থ্য দফতরের তরফে লিখিত বিবৃতি দিয়ে চিকিৎসকদের অনুরোধ করা হয়েছে  কাজে ফেরত যেতে। তবু সুরাহা হয়নি গোটা বিষয়ের।