নারদ মামলায় গ্রেফতারের পরেই অসুস্থ শোভন চট্টোপাধ্যায়। লিভার সিরোসিসে আক্রান্ত হয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। অপরদিকে পরীক্ষার পর জানা গিয়েছে, কোভিড থেকে সেরে উঠলেও মদন মিত্রের ফুসফুসে ক্ষত রয়ে গিয়েছে। শুক্রবার এমন কথাই জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। 

বিচারপতিদের মতবিরোধ, নারদ-মামলা গেল বৃহত্তর বেঞ্চে, আজই শুনানির সম্ভাবনা 

 

 

শোভন চট্টোপাধ্যায়রের বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্য়োপাধ্যায় জানিয়েছেন, 'শোভনবাবুর লিভারের সমস্যা ছিল। আরও কিছু শারীরিক পরীক্ষা হবে।' বৃহস্পতিবার ইউএসজি করে দেখা দিয়েছে শোভন লিভারের সিরোসিসে আক্রান্ত। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, এটা দীর্ঘদিনের রোগ। সেই সমস্যাই আরও বেড়েছে। তার জন্য শুরু হয়েছে চিকিৎসা। অপরদিকে মদন মিত্রের বুকে রয়েছে সংক্রমণ। সম্প্রতি তিনি কোভিডে আক্রান্ত হয়েছিলেন। ভর্তি ছিলেন এসএসকেম হাসপাতালে। এদিকে কোভিড মুক্ত হয়েও  মদন মিত্রের ফুসফুসে ক্ষত রয়ে গিয়েছে। পরীক্ষা করে দেখা গিয়েছে কোভিডের ক্ষত। 


আরও পড়ুন, রাজ্যে ভয়াবহ ব্ল্যাক ফাংগাসের থাবা, আক্রান্ত ৫, উদ্বেগ বাড়ল চিকিৎসকদের  

 

 


প্রসঙ্গত, সোমবার নারদকাণ্ডে পশ্চিমবঙ্গের ৪ জন প্রাক্তন এবং বর্তমান মন্ত্রীকে গ্রেফতার করেছিল সিবিআই। এরপরেই সোমবার রাতেই অসুস্থ হয়ে পড়েন  মদন-শোভন-সুব্রত-ফিরহাদ চারজনেই। মঙ্গলবার বিকেলেই ফিরহাদের আইনজীবি জানিয়েছিলেন, মক্কেলের জ্বর এসেছে। তবে বাবার সঙ্গে দেখা করার পর মেয়ে জানিয়েছিলেন সুস্থ আছেন এখন ফিরহাদ। রাতে জেল সূত্রে জানা যায়, মারাত্মক জ্বর এসেছিল ফিরহাদের। তাপমাত্রা ১০২ এর কাছাকাছি। ছিল পেট ব্যাথাও। এসএসকেমএ নিয়ে যেতে চেয়েছিল জেল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু হাসপাতালে যেতে চাননি ফিরহাদ।  তবে এইমুহূর্তে তাঁর  শারীরিক অবস্থা এখন স্থিতিশীল। জ্বর-পেট ব্যাথা নেই ফিরহাদের।