নারদ মামলায় রাজ্যকে পার্টি করার অনুমতি দিল কলকাতা হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার পাঁচ বিচারপতির বৃহত্তর বেঞ্চে শুরু হয়েছে এই মামলার শুনানি। তুষার মেহতা জানিয়েছেন, রাজ্যকে পার্টি করতে কোনও অসুবিধা নেই।' এরপরেই রাজ্যকে মামলায় পার্টি করার অনুমতি দেয় পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ। উল্লেখ্য, এদিনের মতো নারদ মামলার শুনানি শেষ। পরবর্তী শুনানি শুক্রবার দুপুর বারোটায়। 

আরও পড়ুন, কেটেছে আচ্ছন্নভাব, বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে অক্সিজেনের মাত্রা বুদ্ধদেবকে 

 

 

হাইকোর্টের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চের কাছে বাদানুবাদের শুরুতেই সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহেতাকে আর্জি রাখলেন। প্রথম থেকেই তাঁর দাবি 'এই মামলা অন্যত্র সরানো হোক। এদিনও শুনানির শুরু থেকেই চলে মত বিরোধ আদালত চত্বরে।এদিন তুষার মেহতা বলেন, আদালত এখনই পদক্ষেপ না করলে ভবিষ্যতে একইভাবে জনগণকে ব্যবহার করে বিচার ব্যবস্থার উপর চাপ তৈরি করা হবে। ভবিষ্যতে বড় কোনও দুষ্কৃতি ধরা পড়লেও একই ঘটনা ঘটবে। পাশাপাশি শুনানির শুরুতেই রাজ্যকে পার্টি করা হয়নি বলে আদালতে জানান অ্য়াডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত। তিনি বলেছেন, সুপ্রিম কোর্টে রাজ্য় সরকারকে এই মামলার পার্টি বা যুক্ত করেছিল সিবিআই। তুষার মেহতা জানিয়েছেন, রাজ্যকে পার্টি করতে কোনও অসুবিধা নেই।' এরপরেই রাজ্যকে মামলায় পার্টি করার অনুমতি দেয় পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ।

আরও পড়ুন, গঙ্গার জলস্তর হতে চলেছে প্রায় ১৮ ফুট, প্রবল বর্ষণে আজ ভাসতে চলেছে কলকাতা 

 


 
প্রসঙ্গত,  নারদকাণ্ড কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। তবে শেষ অবধি সুপ্রিম কোর্টে আগাম আবেদন করেও কার্যত লাভ হয়নি কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার।   নারদ মামলায় সুপ্রিম কোর্টে সিবিআই-র আর্জি খারিজ হয়েছে। এদিন কলকাতা হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চে এই মামলার শুনানি চলেছে।  ৫ বিচারপতির বেঞ্চ সাফ জানিয়ে দিয়েছে, 'শুনানি চলবেই। চাইলে কলকাতা হাইকোর্টই নারদ মামলার নিষ্পত্তি করতে পারে।'  উল্লেখ্য, এদিনের মতো নারদ মামলার শুনানি শেষ। পরবর্তী শুনানি শুক্রবার দুপুর বারোটায়। কে কোন বিষয়ে সওয়াল করবে, সকলপক্ষ নোট দেওয়ার নির্দেশ আদালতের।