অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেছিল মানুষজন। মাত্র ১৫ মিনিটেই শেষ হয়ে গেল হাওড়া থেকে দিল্লিগামী বিশেষ ট্রেনের টিকিট। বেশি সময় পাওয়া গেল না দিল্লি থকে হাওড়া ফেরার টিকিট কিনতে। প্রায় একই সময় শেষ হয়ে যায় সেই টিকিটও। দীর্ঘদিন  লকডাউনের পর মঙ্গলবারই হাওড়া থেকে প্রথম ট্রেন নয়াদিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা দেবে৷ বুধবার নয়াদিল্লি থেকে হাওড়ার উদ্দেশ্যে ছাড়বে ট্রেন৷ এদিন ছিল তারই টিকিট কেনার পালা।

পিপিই পরে দেহ সরালেন মৃতের ভাই, আজব কাণ্ড কলকাতা মেডিক্যালে..

হাওড়া থেকে মঙ্গলবার বিকেল ৫.০৫ মিনিটে নয়াদিল্লিগামী এসি স্পেশ্যাল ট্রেন ছাড়বে৷ প্রতিদিনই ওই সময়ে ট্রেন ছাড়বে হাওড়া স্টেশন থেকে৷ পরদিন সকাল দশটায় নয়াদিল্লি পৌঁছবে ট্রেনটি৷ অন্যদিকে বুধবার বিকেল ৪.৫৫ মিনিটে নয়াদিল্লি স্টেশন থেকে রওনা দেবে হাওড়াগামী ট্রেনটি৷ পরদিন সকাল ৯.৫৫ মিনিটে ট্রেনটি হাওড়ায় এসে পৌঁছবে৷ ট্রেনটিতে এস থ্রি টায়ার, টু টায়ার এবং এসি ফার্স্ট ক্লাস কামরা থাকবে৷

পিপিই-মাস্ক পাচ্ছেন না, বিক্ষোভে কাজ বন্ধ করলেন আরজি করের ২০০ জুনিয়র ডাক্তার.

এ দিন বিকেল চারটে থেকে আইআরসিটিসি-র ওয়েবসাইটে ট্রেনের টিকিট বুকিং শুরু হওয়ার কথা ছিল৷ যদিও প্রযুক্তিগত ত্রুটির কারণে বুকিং শুরু হয় সন্ধে ৬টায়। দেখা যায় বুকিং শুরু হতেই নিমেষেই হাওড়া থেকে দিল্লিগামী ট্রেনের টিকিট৷ মাত্র পাঁচ মিনিটে প্রথম শ্রেণির টিকিট শেষ হয়ে যায়৷ এসি থ্রি টায়ারের টিকিট শেষ হয় বুকিং শুরুর সাত মিনিটের মধ্যে৷ সবমিলিয়ে ১৫ মিনিটের মধ্যে ট্রেনের ১০৭২টি আসন বুক হয়ে যায়৷ দিল্লি থেকে হাওড়াগামী ট্রেনের টিকিটও একই ভাবে দ্রুত শেষ হয়ে যায়।

বিজেপিকে করোনা অস্ত্রে ঘায়েল করার পরিকল্পনা, গুজরাতের ভিডিয়ো আনছে তৃণমূল.

সম্প্রতি ১৫ জোড়া ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলমন্ত্রক। তবে সেই ক্ষেত্রেও মানা হবে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যবিধি। তেমনই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে রেল মন্ত্রকের তরফ থেকে। চরম সতর্কতা নেওয়া হচ্ছে রাজধানীর যাত্রীদের জন্যও। সোমবার কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ট্রেন ছাড়ার ৯০ মিনিট আগে স্টেশনে আসতে হবে। ট্রেন ছাড়ার ১৫ মিনিট আগে প্ল্যাটফর্মে প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে। 

স্টেশনে ঢোকার আগেই প্রত্যেক যাত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে। সেই পরীক্ষা যদি সংশ্লিষ্ট যাত্রী পাশ করেন তবেই তাঁকে সফরের অনুমতি দেওয়া হবে।প্রত্যেক যাত্রীকে নূন্যতম সামগ্রী নিয়ে সফর করতে আবেদন জানিয়েছে রেল মন্ত্রক।  স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের নির্দেশ অনুযায়ী প্রত্যেক যাত্রীকে মাস্ক পরতে হবে । মেনে চলতে হবে নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব। প্রত্যেক যাত্রীকেই আরোগ্য সেতু অ্যাপ তাঁর মোবাইলফোনে ডাউনলোড করতে হবে।