রাজ্য়ে করোনা নিয়ে 'ব্যাকফুটে' তৃণমূল। বিজেপির লাগাতার 'ভয় পেয়েছে মমতা' প্রচারে ঘুম ছুটেছে তৃণমূল নেতৃত্বের। বেগতিক দেখে দলের স্ট্র্য়াটেজিস্ট প্রশান্ত কিশোরের শরনাপন্ন হয়েছে  দল। সূত্রের খবর, বিজেপিকে পাল্টা দিতে গুজরাতের করোনা পরিসংখ্যানকে হাতিয়ার করবে ঘাসফুল। দলের সোশ্য়াল মিডিয়া প্লাটফর্মে ছড়িয়ে দেওয়া হবে গুজরাতের করোনার পরিস্থিতি।

শুধু কলকাতাতেই করোনায় আক্রান্ত ৯৪৮, মৃতের সংখ্যা ৭৪

কালীঘাটে কান পাতলে শোনা যাচ্ছে, দলের পরিকল্পনা কমিটির এই মিটিং ইতিমধ্য়েই সম্পন্ন হয়েছে। ভিডিয়ো কনফারেন্সে এই মিটিংয়ে প্রশান্ত কিশোর, অভিষেক বন্দ্য়োপাধ্যায় ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সুব্রত বক্সি, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, অমিত  মিত্র। জানা গিয়েছে, কোনও ভুয়ো তথ্য় নয়, যুক্তিপূর্ণ এই ভিডিয়োগুলি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেবে তৃণমূলের গ্রুপগুলি। পিকের বানানো সেই স্বল্প দৈর্ঘের উপস্থাপনায় থাকবে বাংলার করোনা মোকাবিলার ইতিবাচক দিকগুলি। এছাড়াও বিজেপিকে বিঁধতে খোদ গুজরাতের করোনা মোকাবিলায় নেতিবাচক দিক তুলে ধরবে টিম পিকে। আপাতত সেই অস্ত্রে শান দিচ্ছে তৃণমূল।

আড্ডার আসরে মুখ্যসচিব , ছবি টুইট করে বিপাকে বাবুল.

রবিবার পিকে-র ভিডিও বৈঠকে উপস্থিত থেকে এই সারমর্মই বুঝেছেন তৃণমূলের বিধায়করা । আপাতত , করোনা পর্বে বিজেপিকে একহাত নিতে মোদীর রাজ্য গুজরাতে হাসপাতালে পঞ্চাশ জন করোনায় মৃত, তার ভিডিও বাজারে আনতে চলেছে টিম পিকে । জানা গিয়েছে,কিছু রাজ্য় যেখানে সরকারি কর্মীদের সময়ে বেতন দেওয়া নিয়ে গড়িমসি করছে সেখানে পশ্চিমবঙ্গ সরকার মাসের এক তারিখে বেতন দিচ্ছে, সেই কথা প্রশান্ত কিশোরকে জানিয়েছেন অমিত মিত্র। এই বিষয়কে কাজে লাগাতে পারেন প্রশান্ত। রাখা হতে পারে উত্তরপ্রদেশের করোনা পরিস্থিতি।

প্রস্তুতি নিচ্ছে কলকাতা মেট্রো, স্বাস্থ্য় বিধি মেনেই পরিষেবা.

জানা গিয়েছে, ইতিমধ্য়েই গুজরাতের হাসপাতালে ৫০টা লাশ পড়ে আছে, সেই ভিডিও হাতে এসেছে তৃণমূলের । বাংলায় ১০ লাখ লোক পিছু ২ জন মরেছে , গুজরাতে মরেছে ১০ লাখে ৪ জন। এই তথ্য সোশ্য়াল মিডিয়ায় প্রচার করার ওপর জোর দিয়েছে তৃণমূলের কোর কমিটি। বৈঠকে বিধায়কদের পাঁচটি মূল কাজের নির্দেশ দিয়েছেন অভিষেক বন্দ্য়োপাধ্য়ায় ৷ সবাই যেন রেশন পায় সেদিকে নজর দিতে বলা হয়েছে বিধায়কদের। কেউ যদি রেশন না পায় সেগুলি প্রশাসনকে জানাতে বলা হয়েছে । কোন জেলা থেকে কোন রাজ্য়ে পরিযায়ী শ্রমিকরা রয়েছেন, তা প্রশাসনকে জানাতে বলা হয়েছে। এছাড়াও সাংবাদিকদের সঙ্গে হোয়াটস আপ গ্রুপে নিয়মিত যোগাযোগ রাখতে বলা হয়েছে।