একুশের বিধানসভা ভোটের আগে রাজ্যে ফের কর্মসংস্থানের বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। তথ্য প্রযুক্তি সংস্থা ইনফোসিস আগামী দিনে রাজ্যে শিল্পস্থাপন করবে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। বাংলায় বিনিয়োগের ইচ্ছাপ্রকাশ করে ইনফোসিস রাজ্য সরকারকে চিঠি দিয়েছে বলে জানালেন মমতা।

আরও পড়ুন-'নিজের চেয়ারের সম্মান রাখুন', কৃষি আইন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে কী বললেন মমতা

 

নবান্ন থেকে সাংবাদিক সম্মেলন করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ''আগামী দিনে রাজ্যে ইনফোসিস শিল্প স্থাপন করবে। ঠিক যেভাবে উইপ্রোকে জমি দেওয়া হয়েছিল, ঠিক সেইভাবেই আগামী দিনে ইনফোসিসকেও বিনিয়োগের জন্য জমি দেবে রাজ্য সরকার''। এর ফলে ইনফোসিস কলকাতায় তথ্য প্রযুক্তি সংস্থা গড়ে তুলবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়েই ইনফোসিস বিনিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু করবে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়।

বাংলায় কীভাবে বিনিয়োগ করবে ইনফোসিস?

বিনিয়োগের জন্য ইনফোসিস জানিয়েছিল, রাজারহাটে নতুন ক্যাম্পাস শীঘ্রই তৈরি হবে। সে কারণে ৫০ একর জমির উপর পাঁচিল তৈরির জন্য হিডকোকে দায়িত্ব দিয়েছে এই সংস্থা। সূত্রের খবর, সে জন্য ইনফোসিস কর্তৃপক্ষকে ছয় কোটি টাকার দরপত্র দিয়েছে হিডকো। ওয়ার্ক ওয়ার্ড পাওয়ার তিন মাসের মধ্যেই পাঁচিল তোলার কাজ শুরু হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে খবর। ২০১০ সালে ৭৫ কোটি টাকায় রাজারহাটে ৫০ একর জমি কিনেছিল ইনফোসিস। কিন্তু SEZ বিতর্কের জেরে প্রকল্পের কাজ আটকে যায়। এই অবস্থায় জট কাটাতে জমির মিশ্র ব্যবহারের অনুমতি ও 'ফ্রি-হোল্ড' মালিকানা দেওয়া হয়েছিল ইনফোসিসকে। সূত্রের খবর, এই অবস্থায় থাকার পর সমস্ত জট কাটিয়ে একুশ সালের মাঝামাঝি সময়ে ইনফোসিস রাজ্যে বিনিয়োগ করতে পারে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়।

আরও পড়ুন-তৃণমূলের আরও এক নয়া কর্মসূচি, সবার সমস্যা জানতে 'দুয়ারে দুয়ারে' প্রশাসন

পাশাপাশি, মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন,  ২০টি তথ্য প্রযুক্তি সংস্থাকে জমি দেওয়া হয়েছে সিলিকন ভ্যালিতে। রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগেই ১০০ একর জমি দেওয়া হয়েছিল পরবর্তীতে আরো ১০০ একর জমি সিলিকন ভ্যালিতে দেওয়া হয়েছে বলে নবান্ন থেকে রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 
এর ফলে আগামী দিনে কর্মসংস্থান তৈরি হবে রাজ্যে। তরুণ যুবক-যুতীরা এই সমস্ত আইটি সেক্টর গুলিতে চাকরি পাবেন বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী।