কৃষি আইনের বিরোধিতায় দেশ জুড়ে ঝড় উঠেছিল। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠনগুলির ধর্মঘটের প্রধান দাবি ছিল এই কৃষি আইন প্রত্যাহার। রাজ্যসভায় কৃষি বিল পাশ হওয়ার পর কেন্দ্রের তীব্র সমালোচনা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। একুশের বিধানসভা ভোটের আগে এই কৃষি আইনকেই হাতিয়ার করতে চাই তৃণমূল কংগ্রেস। তাই এই আইনের বিরোধিতায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমণ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। মঙ্গলবার নবান্ন থেকে প্রধানমন্ত্রীকে সরাসরি আক্রমণ করেন তিনি।

আরও পড়ুন-একুশের ভোটের আগে জনমত সমীক্ষা, কার দখলে দক্ষিণ দিনাজপুর, কে এগিয়ে, কে পিছিয়ে

মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে বলবো, ''আপনার চেয়ারের সম্মান রাখবেন''। কৃষক আইন নিয়ে কেন্দ্রের সমালোচনা করতে গিয়ে নবান্ন থেকে এই ভাষাতেই প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ''কৃষক বিল এর কারণে কৃষকদের কাছ থেকে অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে''। একই সঙ্গে তিনি বলেন, ''কেউ কেউ আসবে যারা সব কিছু লুটে নিয়ে যাবে''। ''কেন্দ্রীয় সরকার ভ্যাকসিন নিয়ে কেন কোন উদ্যোগ নিচ্ছে না''। সেই বিষয়েই এদিন প্রশ্ন তোলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একইসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ''আমাদের কৃষক ভালো থাকুক এটাই আমরা চাই। রাজীব গান্ধীর এর থেকে বেশি আসন নিয়ে সরকার গঠন করেছিলেন, কিন্তু তারা কোন দিন এই কাজ করেননি''।

আরও পড়ুন-তৃণমূলের আরও এক নয়া কর্মসূচি, সবার সমস্যা জানতে 'দুয়ারে দুয়ারে' প্রশাসন

একইসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ''যারা বিজেপিতে আগে থেকে আছেন তাঁরাই কৃষক বিরোধী এই কাজ কোন দিন সমর্থন করতেন না''। প্রসঙ্গত, এর আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, কৃষক বিরোধী আন্দোলনে সামিল হওয়ার জন্য প্রয়োজন হলে দিল্লী পর্যন্ত যেতে রাজি হয়েছেন তিনি। তিনি আরও বলেন, ''কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের রোজগার দ্বিগুণ বৃদ্ধি করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন কিন্তু সেই প্রতিশ্রুতি পালন করতে ব্যর্থ হয়েছেন তাঁরা''।