কলকাতার বাসিন্দা মঞ্জুসা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়, সফট্ওয়ার কোম্পানির কাজ ছেড়ে দিয়ে তিনি এখন একজন প্রতিষ্ঠিত স্ট্য়ান্ড-আপ কমেডিয়ান। তার অভিনীত 'রুপশ্রী' চরিত্রটি আজ রীতিমত বিখ্য়াত।  কালো টিপ আর গলায় পুথির মালা পরা রুপশ্রীকে দেখার জন্য় এখন সবাই পাগল। কিন্তু এর শুরুটা মোটেই এত সহজে হয়নি। অনেক সাধনার পর আজ তিনি আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে লোক হাসান। বলা যেতে পারে তিনি এখন সব মহিলারই অন্য়তম অনুপ্রেরণা। 

 

আরও পড়ুন, তিন জনের প্রাণ বাঁচিয়ে চলে গেলেন তরুণী, আবারও অঙ্গ প্রতিস্থাপন হল শহর কলকাতায়

তিনি ছিলেন বরাবরের কলকাতার বাসিন্দা। আই টি কোম্পানিতে চাকরি পেয়েই তিনি ব্যাঙ্গালোর চলে যান। তারপর তাঁর বরের কর্মসূত্রে তিনি চলে আসেন হায়াদরাবাদ। এদিকে  তিনি সেই সময়টায় পুরো নিঃসঙ্গতায় কাটান। একটাও বন্ধু ছিলনা তার। তাই নতুন বন্ধু পাবার আশায়, নিজেকে নতুন করে খুঁজতে তিনি যোগ দেন একটি পাবলিক ক্লাবে।  নিজেকে প্রকাশ করার এবং কথা বলে সবার মন জয় করার সেটি ছিল অন্য়তম পাবলিক প্ল্য়াটর্ফম। আর সেখান থেকেই  শুরু তার স্ট্য়ান্ড-আপ কমেডিয়ানের নতুন জীবন।

আরও পড়ুন, নিঃসঙ্গ মায়ের জন্য জীবনসঙ্গী চাই, ফেসবুকে ভাইরাল ছেলের পোস্ট

তবে হঠাৎ করেই কাউকে হাসানো মুখের কথা নয়। আসলে এই স্ট্য়ান্ড-আপ কমেডিয়ানের শিকড়টা ছিল তার পরিবারেই ভিতরে। বাড়িতে বরাবরই  হাসি-মজা লেগেই থাকত। মূলত তার বাবাই নানা ভঙ্গিমায় তাদের হাসাতেন। আর মনের অজান্তেই কমেডিয়ান চরিত্রটা তার ভিতরে বড় হতে শুরু করে। আর সেই সঙ্গে চলে আমেরিকান টিভি শো-এর ক্রিস্টেন উইগ এবং কেট ম্য়াককিননের কমেডি দেখে মনে মনে মহড়া। আর এভাবেই সবার একঘেয়েমি কাটাতে ও নতুন করে নিজেকে দেখতে শেখাতে জন্ম নেয় বঙ্গনারী 'রুপশ্রী'।