কলকাতা মেডিক্য়াল কলেজের বন্ধ ঘর থেকে মিলল কাটা পা। এই ঘটনায় ব্য়াপক উত্তেজনা ছড়াল হাসপাতাল চত্ত্বরে। বালতি ভর্তি ফর্মালিনে ডোবানো অবস্থায় ওই পা-টি পাওয়া গিয়েছে। এরপরই জানানো হয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। ঘটনার খবর পেয়েই পুলিশ এসে ওই কাটা পা বাজেয়াপ্ত করে। 

আরও পড়ুন, সকাল থেকেই মুখ ভার আকাশের, ঝেঁপে বৃষ্টি আসছে শহরে


সূত্রের খবর, কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের এমার্জেন্সি ওয়ার্ডের দোতলায় রয়েছে অর্থপেডিক ওয়ার্ড এবং অপারেশন থিয়েটার৷ তার পাশেই রয়েছে বিভাগীয় প্রধান ও অন্যান্য চিকিৎসকদের ঘর৷ এছাড়া হাসপাতালের গ্রিন বিল্ডিংয়েও বেশ কিছু ঘর রয়েছে৷ এই সমস্ত ঘরের কাজকর্মের জন্য এক সপ্তাহ আগে ঘর বন্ধ করে দেওয়া হয়৷ এরপর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সেই ঘরের চাবি পিডব্লিউডির হাতে তুলে দেয়। এরপর ফের গত মঙ্গলবার নাগাদ ওই বন্ধ ঘরটি খুলতেই কর্মীদের নজরে পড়ে  বালতি ভর্তি ফর্মালিনে ডোবানো অবস্থায় একটি কাটা পা। স্বাভাবিকভাবেই ভয় পেয়ে যান ওই কর্মীরা। এরপরই খবর দেওয়া হয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং পুলিশকে। পুলিশ এসে ওই কাটা পা বাজেয়াপ্ত করে। 

আরও পড়ুন, কলকাতায় শুরু বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টিপাত, কেমন থাকবে সকালের আকাশ

পুলিশি সূত্রে খবর, ওই কাটা পায়ের কোনও ডেথ সার্টিফিকেট বা আইনি কাগজ পত্রের খোঁজ পাওয়া যায়নি। বাজেয়াপ্ত কাটা পা টি একজন পুরুষের। অপরদিকে হাসপাতাল সুপার জানিয়েছেন, একসপ্তাহ আগে পিডব্লিউডি কাজ করছিল। সেই সময় কেউ বালতি করে এনে ওই কাটা পা রেখে যেতে পারে কিংবা  ডেথ সার্টিফিকেট পরে বানানো হবে বলে অপারেশনের পর ফর্মালিনে ডুবিয়েও রাখার সম্ভাবনার কথা তিনি জানিয়েছেন। 

আরও পড়ুন, কলকাতায় গোলি মারো স্লোগান, হাওড়া থেকে গ্রেফতার বিজেপি কর্মী