রাজ্য় সরকারের অস্বস্তি বাড়াতে গিয়ে নিজেই বিপাকে পড়লেন আসানসোলের বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। সম্প্রতি রাজ্যের মুখ্যসচিবের একটি আড্ডার আসরের ছবি সোশ্য়াল মিডিয়ায় পোস্ট করেন বাবুল। যেখানে কেন্দ্রীয় বন ও পরিবেশ প্রতিমন্ত্রী দাবি করেছেন, মুখ্য়সচিবের সঙ্গে ওই আসরে ছিলেন মুখ্য়মন্ত্রীর ভাই কার্তিক বন্দ্য়োপাধ্যায়। এই ছবিই বলে দেয় তৃণমূলের সঙ্গে মুখ্য়সচিবের কোনও অশুভ আঁতাত রয়েছে কিনা। 

— DCP South Kolkata (@KPSouthDiv) May 10, 2020  

সোশ্যাল মিডিয়ায় বাবুল যে ছবিটি পোস্ট করেছেন তাতে দেখা যাচ্ছে আড্ডার আসরে রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা ও মুখ্যমন্ত্রীর ভাই কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় রয়েছেন। সেই সঙ্গে আরও বেশ কয়েকজন মহিলাকেও ছবিতে দেখা গিয়েছে। ছবিটি পোস্ট করে বাবুল লিখেছেন, “কারো ব্যক্তিগত মুহূর্তের ছবি নিয়ে নোংরামি করার মানসিকতা বা রুচি আমার নেই…পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যসচিব আর মুখ্যমন্ত্রীর ভাইকে এই ছবিটিতে একসাথে দেখা যাচ্ছে ! বিজেপি কোন গোপন ক্যামেরাতে এ ছবিটি তোলেনি !

শ্রমিক ট্রেন নিয়ে রেলের বক্তব্য় ভুল ও বিভ্রান্তিকর,টুইটে দাবি রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিবের

 সকাল থেকেই এই ছবিটি ভাইরাল…মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীর ভাই কার্তিক ব্যানার্জী চিফ সেক্রেটারির সাথে ড্রিংক করছেন কেন এই প্রশ্ন উঠবে  না?” শেষে বাবুল লিখেছেন, “তৃণমূল – দিদি – CS বলতেই পারেন এটা ভুয়ো ছবি ! আর কিছু বলছি না শেষে একটি জিনিস খালি বলবো – হুইস্কির সাথে কোনো ছবি থাকা কিন্তু অপরাধ নয়। তাই ওই নিয়ে যারা মুখ্যসচিবকে কুকথা বলছেন তার সাথে আমি একমত নই ! তৃণমূলের সাথে ওনার কোনও অশুভ আঁতাত আছে কিনা প্রশ্ন সেটাই !”

ঈদে লকডাউন শিথিল করবেন না, মুখ্য়মন্ত্রীকে চিঠি বেঙ্গল ইমাম অ্যাসোসিয়েশনের.

তবে সোশ্য়াল মিডিয়ায় এই ছবি প্রকাশ্য়ে আসতেই রাজ্য় রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। মুখ্যসচিবের এমন ছবি প্রকাশ্যে আসতেই রীতিমত চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। যার জেরে দ্রুত বিষয়টিতে আলোকপাত করে কলকাতা পুলিশ। পরে ডিসিপি সাউথ কলকাতার ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে লেখা হয়েছে, ‘সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার হওয়া এই পোস্টটি সম্পূর্ণ ভুয়ো। যে তথ্য দেওয়া হয়েছে, তাও মিথ্যা। এই বিষয়ে একটি মামলা দায়ের হয়েছে, প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’স্বাভাবিকভাবেই কলাকাতা পুলিশের এই টুইটের জেরে বিড়ম্বনা বাড়বে বাবুলের।