'হানিমুন ট্রাভেলস্ প্রাইভেট লিমিটেড' ছবিতে সেই মিসেস সেনের ভূমিকায় রাইমার ক্য়ারাটে দেখে রীতিমত সব মেয়েরাই স্বপ্ন দেখেছিল, কীভাবে নিজেদের আত্মরক্ষা করা যায়। শহরে চড়া বেতনে ক্য়ারাটে শেখাটা এতদিন ছিল মধ্য়বিত্তের নাগালের বাইরে। কিন্তু এবার সেই স্বপ্ন বাস্তবে রুপান্তরিত হতে চলেছে। এখন থেকে নিজেদের সুরক্ষার ব্য়বস্থা নিজেরাই করবেন  শহরের সব মহিলারা। কারন মহিলাদের জন্য় মার্শাল আর্টের প্রশিক্ষণ শুরু করেছে কলকাতা পুলিশ। আর এই প্রকল্পের নাম হল 'তেজস্বিনী'।

আরও পড়ুন, পেঁয়াজের দাম আগুন, দিন চালাতে কপালে ভাঁজ মধ্যবিত্তের

শহরের মোট ২০টি জায়গায় এই প্রশিক্ষণের ব্য়বস্থা করেছেন কমিউনিটি পুলিশের কর্তারা। অনলাইনে বা যে কোনও থানায় গিয়ে  আবেদন জমা দিতে পারেন। যাবতীয় তথ্য় সেখান থেকেই  তাঁরা জানতে পারবে।  ইভটিজিং বা যেকোনও  আক্রমণ থেকে কীভাবে আত্মরক্ষা করবেন, সেই প্রশিক্ষণই তেজস্বিনীদের দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে কলকাতা পুলিশ।

আরও জানুন, ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল, ৯-১০ কলকাতায় ভারী বৃষ্টি

রাজ্যের নারী নিরাপত্তায় বরাবরই যত্নশীল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁরই নির্দেশে কলকাতা পুলিশের তরফে, মহিলাদের সুরক্ষায় একাধিক প্রকল্প নেওয়া হয়েছে।  মহিলা পুলিশকর্মীদের জন্যও থাকছে বিশেষ ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা । এতে তাঁরা আরও বেশি শক্তিশালীভাবে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা দিতে পারেন। আর এবার সেই কলকাতা পুলিশই সাধারণ মানুষের জন্য় সরাসরি সাহায্য়ের হাত বাড়িয়ে দিল। তবে যে কোনও মহিলাই এখন চাইলেই কলকাতা পুলিশ দ্বারা পরিচালিত নির্দিষ্ট প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে আবেদনের ভিত্তিতে এই মার্শাল আর্ট শিখতে পারবেন । যাইহোক 'তেজস্বিনী' প্রকল্প নিয়ে খুবই আশাবাদী পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্মচারীরা।