অবশেষে উঠে যেতে পারে 'কোভিড কর'। লকডাউনের পর যা মদের ওপর লাগু করেছিল সরকার। ৩০ শতাংশ সেই বাড়তি মদের দাম থেকে রেহাই পেতে চলেছেন সুরাপ্রেমীরা। নবান্ন সূত্রে খবর, আগামী মাস থেকেই অতিরিক্ত দাম ছাড়া মদ পাবেন ক্রেতারা।

রাজ্য়ের আয়ের খতিয়ান বলছে, একটা বড় অংশ আয় আসে মদ বিক্রি থেকে। গত ২৫ মার্চ লকডাউনের সময় থেকেই  বন্ধ হয়ে যায় মদের দোকান। ফলে রাতারাতি আয় কমে যায় রাজ্য় সরকারের। তৃতীয়বার  লকডাউনের পর থেকেই কিছু বিষয়ে ছাড় দিতে শুরু করে সরকার।  সেই সময় নিয়ম মেনে মদের দোকান খোলার অনুমতি দেয় সরকার। কিন্তু কোভিড পরিস্থিতিতে রাজস্ব আদায়ে মদের ওপর ৩০ শতাংশ কোভিড কর চাপায় রাজ্য় সরকার। ফলে মদের দোকান খুললেও সুরাপ্রেমীদের মাথায় হাত পরে। অবশেষে সেই বাড়তি ৩০ শতাংশের বোঝা কমাতে চলেছে মমতার সরকার।

সারা দেশে মদের ওপর সবথেকে বেশি ৭০ শতাংশ কর নেয় দিল্লির অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আপ সরকার। তা সত্ত্বেও রাজধানীতে মদের বিক্রির  অভাব পড়ে না। একই অবস্তা উত্তর পূর্বে। সেখানে মূল শহরের চার মাথার মোড়ে চারের বেশি মদের দোকান দেখা যায়। তবে পশ্চিমবঙ্গে সেই  তুলনায় মদের দাম কম। কিন্তু রাজ্য় সরকার ৩০ শতাংশ কোভিড কর চাপানোয় বিপাকে পড়েছেন ক্রেতারা। 

শোনা যাচ্ছে, প্রথমে মদ বিক্রির কাটতি থাকলেও বর্তমানে বেশি দামে মদ কেনায় অনীহা রয়েছে সুরাপ্রেমীদের। এমনিতেই করোনা আবহে হাতে টাকাকড়ি কম। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে নেশায় আলাদা করে  বেশি খরচ করতে পারছেন তারা। আয় কমার আশায় এবার তাই সুরাপ্রেমীদের এই অতিরিক্ত কর কমিয়ে দিতে চাইছে রাজ্য় সরকার। যাতে নতুন করে রাজকোষ ভরে ওঠে।