দেশে চতুর্থ দফার লকডাউনে রাজ্য়ে একে একে খুলে যাবে দোকানপাঠ।  স্বাস্থ্য়বিধি মেনে জোড়-বিজোড় নীতিতে  খুলবে হকার্স মার্কেট। আগামী ২১ মে থেকে রাজ্যে সব বড় দোকান খুলবে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কন্টেনমেন্ট জোন বাদে ২৭ মে থেকে স্বাস্থ্য় বিধি মেনে খুলবে হকার্স মার্কেট।

লকডাউন ফোর-এ বড় ঘোষণা, রাজ্য়ে সেলুন-বিউটি পার্লার খোলার অনুমতি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

এদিন নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, মানুষের জীবন-জীবিকা চালু রাখতে হবে। সামাজিক দূরত্ব মেনে খোলা থাকবে হোটেল। কন্টেনমেন্ট জোন তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে। কন্টেনমেন্ট এ -ক্ষতিগ্রস্ত জোন, কন্টেনমেন্ট বি-বাফার জোন, কন্টেনমেন্ট সি-ক্লোন জোন। এই সব জোনে নিয়ম মেনেই খোলা হবে দোকানপাট।

নবান্নকে না জানিয়ে মোদীর আমফান বৈঠকে রেসিডেন্ট কমিশনারকে ডাক, বেজায় ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী
 
এই বলেই থেমে থাকেননি মুখ্য়মন্ত্রী, চতুর্থ দফার লকডাউনে দোকানপাট খোলা হলেও আরও বেশি কড়াকড়ি হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, সবরকম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েই দোকান-বাজার চালু করতে হবে ব্যবসায়ীদের। যারা জিনিস বিক্রি করবেন তাদের মাস্ক পরে বের হতে বেলন মুখ্য়মন্ত্রী।। যারা জিনিস বিক্রি করেন, তাঁদেরও গ্লাভস পরতে বলেন। পাশাপাশি দোকান খুললে ভিড় দেখলেই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কথা স্মরণ করিয়ে দেন তিনি। 

মমতার কথাতেই সিলমোহর,কন্টেনমেন্ট জোন ভাগের দায়িত্ব রাজ্য়কেই দিল কেন্দ্র

এদিন আরও বেশকিছু বিষয়ে ছাড়পত্র দিয়েছে রাজ্য় সরকার। এবার সামাজিক দূরত্ব মেনে রাজ্য়ে সেলুন, বিউটি পার্লার খোলার অনুমতি দিলেন মুখ্য়মন্ত্রী। তবে কোনওভাবেই স্বাস্থ্য়বিধি অমান্য় করে ব্যবসা চালানো যাবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন মমতা।