করোনায় আক্রান্ত হতেই মন্ত্রীর মৃত্যুর গুজব ছড়াতে সময় লাগল সামান্য়। এমনকী রাজ্য়ের তথ্য সংস্কৃতি দফতরের হাত ধরে মন্টুরাম পাখিরার পরিবারের জ্ন্য় মুখ্যমন্ত্রীর শোকবার্তা প্রকাশ করা হয়। কিন্তু পরে বিষয়টা প্রকাশ্য়ে আসায় তড়িঘড়ি ভুল বুঝতে পারে তথ্য় সংস্কৃতি দফতর। তুলে নেওয়া হয় সেই শোকবার্তা। 

দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রীকে অশ্লীল মন্তব্য, প্রতিবাদ করলে প্রতিবেশী দাদাকে মারধর...

কিন্তু কেন এরকম হল তা নিয়ে তথ্য সংস্কৃতি দফতরের ওপর ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন প্রশাসক মহলের অনেকেই। বুধবারের এই ঘটনায় ইতিমধ্য়েই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে চারিদিকে। রাজ্য প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ এক দফতরের এই ভুল নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এ নিয়ে প্রশাসনের তরফে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

হাসিন জাহানকে ফোনে খুনের হুমকি,তদন্ত কতদূর জানতে চাইল হাইকোর্ট.
 
জানা গিয়েছে,বর্তমানে রাজ্য়ের সুন্দরবন উন্নয়ন মন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত। বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি। মঙ্গলবার রাতে আচমকাই অসুস্থ হয়ে পড়েন মন্ত্রী। সঙ্গে সঙ্গে কাকদ্বীপ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে করোনা পরীক্ষা করা হলে, সেই রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। প্রথমে তাঁকে কাকদ্বীপ হাসাপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। পরে সেখান থেকে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

মাদক কেনাবেচার অভিযোগে গ্রেফতার,৩১ বছর পর নির্দোষ প্রমাণিত হলদিয়ার মহিলা

এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় রাজ্যের মন্ত্রীর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ে। পরে রাজ্যের তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের তরফে বিবৃতি জারি করা হয়। তাতে মন্টুরাম পাখিরার পরিবারের উদ্দেশ্যে শোকপ্রকাশ করে পাশে থাকার বার্তা দেয়। পরে সেই শোকবার্তা তুলে নেওয়া হয়।