লকডাউনে মাস্ক না পরে বেরোলে ব্য়বস্থা নিতে পারে পুলিশ। বাড়ি পাঠানোর পাশাপাশি জরিমানার মুখে পড়তে পারেন রাজ্য়বাসী। এমনকী আইনত ব্যবস্থার কথাও ভাবা হচ্ছে। শীঘ্রই এমনই আইন আনতে চলেছে রাজ্য় সরকার। নবান্ন সূত্রে তেমনই খবর পাওয়া গিয়েছে।

৫ নয় রাজ্য়ে করোনায় মৃত ১০, তথ্য় দিলেন বাবুল.

লকডাউনে এলোমেলো ঘোরা কমলেও করোনা নিয়ে সচেতন হতে পারেনি রাজ্য়ের একাংশ। বাজার , দোকানপাঠ খোলা থাকায়  নিত্য়দিন মাস্ক না পরেই বাজারে চলে যাচ্ছেন অনেকেই। যা চোখে পড়েছে প্রশাসনের। এদের মধ্য়ে অনেক বয়স্ক ব্যক্তিও রয়েছেন। করেনায় যাদের সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা প্রবল। তবে প্রবীণের পাশাপাশি মাস্ক ছাড়া দেখা যাচ্ছে অনেক নবীনকেও। এদের সবার জন্য়ই রাজ্য়ে বাইরে বেরোলে মাস্ক বাধ্য়তামূলক করতে চলেছে রাজ্য় সরকার। 

করোনা রোগী এবার পার্ক সার্কাসের নার্সিংহোমে , সংস্পর্শে কারা ভেবেই ছড়াচ্ছে আতঙ্ক

সূত্রের খবর, এন ৯৫ মাস্ক ছাড়াও যেকোনও কাপড়ের মাস্ক পরলেই বিধি মানা হবে। অন্যথায় আইন ভঙ্গকারীর বিরুদ্ধে ব্য়বস্তা নেবে পুলিশ। লকডাউনের পরও পণ্য় পরিষেবা স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা চালাচ্ছে রাজ্য় সরকার। অত্য়াবশ্য়কীয় পণ্য ছাড়াও কিছু পরিষেবায় ছাড় দিয়েছেন মুখ্য়মন্ত্রী।

লকডাউনে গিজ গিজ করছে মানুষ, হাওড়া ফুল মার্কেটে ভয়াবহ দৃশ্য়.

নিত্য়দিনের বাজারের পাশাপাশি, মিষ্টির দোকান, ফুল ব্যবসায়ী ও বিড়ি শ্রমিকদেরও লকডাউনে ছাড় দেওয়া হয়েছে। সেক্ষেত্রে মাস্ক পরেই এই সব কাজে বেরোতে বলা হয়েছে রাজ্য়ের তরফে। এবার সেই বিষয়ে আরো কড়া  হতে চলেছে রাজ্য় সরকার। জানা গিয়েছে,গুজরাতের আহমদাবাদে ইতিমধ্য়েই মাস্ক বাধ্য়তামূলক করা হয়েছে। কেউ মাস্ক না পরে রাস্তায় বেরোলে জরিমানা হিসাবে ৫০০০ টাকা নেওয়া হবে।