তপসিয়া খালপাড় সংলগ্ন বস্তিতে বিধ্বংসী আগুন। খালের দু'পারেই প্রায় একশোর বেশি ঝুপড়ি  ভষ্মিভূত হয়ে যায়। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে ২২ টির বেশি দমকলের ইঞ্জিন আসে। এই বিধ্বংসী আগুন নিভাতে রীতিমতো বেগ পেতে হয় দমকল কর্মীদের। ঘর ছাড়া হয় ৭০০-র  বেশি মানুষ।

আরও পড়ুন, 'দামের দালালি বন্ধের দায়িত্ব মুখ্যমন্ত্রীর', আলু-পেঁয়াজে আগুন লাগতেই আক্রমণ সায়ন্তনের

 

 

১০০ টি ঝুপড়ি পুড়ে ছাই


 মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে তপসিয়া ২৪ নম্বর বাস স‍্যান্ড সংলগ্ন এলাকায়। এদিন স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, মঙ্গবার দুপুর বেলায় হঠাৎ করেই ঝুপড়িতে তারা আগুন দেখতে পান। কীভাবে আগুন লেগেছে তদন্ত করছেন দমকল কর্মীরা। পাশাপাশি ঘটনাস্থলে দমকলের ২২ টি ইঞ্জিন এসে পৌঁছেছে। দমকল কর্মীরা আগুন নেভানোর চেষ্টা করছেন। জানা গিয়েছে, ততক্ষণে বস্তির ১০০ টি ঝুপড়ি পুড়ে ছাই হয়েছে গিয়েছে। 

 

আরও পড়ুন, 'কালী পুজোয় বাজি নিষিদ্ধ', হাইকোর্টের নির্দেশিকা মনে করাতে শহরে পুলিশের মাইকিং

 কথা হারিয়েছে  অসংখ্য পরিবার


 ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে আসেন দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু এবং বিধায়ক জাবেদ খান। সংবাদমাধ্যমকে দমকল মন্ত্রী জানান, আগুন  প্রাথমিকভাবে জানা যাচ্ছে এই আগুন একটি রঙের কারখানা থেকে ছড়িয়েছে। আগুন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আসার পরে তদন্ত করে ফরেনসিক রিপোর্ট অনুযায়ী বলা যাবে অগ্নিকাণ্ডটি কি করে হয়েছে । ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। এছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের যথাযথ সাহায্য করবেন বলে জানিয়েছেন।