বিশ্বনাথ দাস, হাওড়া-দলের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে ক্ষোভ প্রকাশ করায় রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে তীব্র অস্বস্তিতে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব। তাঁর এই মন্তব্যের সমালোচনা করেছেন হাওড়ার জেলার তৃণমূল বিধায়করা। রাজীবকে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করেছেন সমবায়মন্ত্রী অরূপ রায়। এবার তাঁর সমালোচনা করলেন উদয়নারায়ণপুরের বিধায়ক সমীর পাঁজা।

আরও পড়ুন-বাড়ির সামনে বাইক রাখা নিয়ে গন্ডগোল, মহিলা সহ এক ব্যক্তিকে মারধরের চাঞ্চল্যকর ভিডিও

তৃণমূল বিধায়ক সমীর পাঁজা রাজীবকে নিশানা করে বলেন, ''নিজেই ঠান্ডা ঘর থেকে বেরিয়ে রাজনীতিতে আত্মপ্রকাশ করেছেন। তিনি কিছু না করে অনেক কিছুই পেয়েছেন। ২০০১ সালে হুগলির আরামবাগ, গোঘাট, পুড়শুড়া, জাঙ্গিপাড়া থেকে হাজার হাজার ঘরছাড়া তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা যখন উদয়নারায়ণপুরে আশ্রয় নিয়েছিলেন। তখন তিনি কোথায় ছিলেন? দলনেত্রী তাঁকে ডোমজুড়ের সাজানো আসনে তাকে টিকিট দিয়েছেন। নির্বাচিত হওয়ার পর দু বছরের মাথায় তাকে ক্যাবিনেট মিনিস্টার করেন। এখনো তিনি মন্ত্রী''।

আরও পড়ুন-রাজ্যে এই প্রথমবার, 'দাদার অনুগামীদের' অফিস খুলল পুরুলিয়ায়

তিনি আরও বলেন, ''দলের গ্রাস রুট লেভেলের কর্মী হিসাবে বলতে পারি রাজীববাবু কোনও দিন সিপিএমের অত্যাচারে গৃহ ছাড়া হননি। পুলিশের দেওয়া মিথ্যে খুনের মামলা হয়নি। মাঠে ময়দানে অথবা ঝড়, বন্যায় তাকে দেখা যায়নি। অথচ, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁকে মন্ত্রিসভায় ঠাঁই দিয়েছেন। তাও তিনি যেভাবে  সমালোচনা করছেন তা বেদনাদায়ক। দুর্নীতি বা অন্য কিছু বিষয়ে তাঁর কিছু বলার থাকলে তিনি তা সরাসরি দলনেত্রীকে বলতে পারতেন। দলের সবকিছু ভোগ করব অথচ দলের বিরুদ্ধে মুখ খুলে প্রচারের আলোয় আসব সেটা ভালো নয়''।