আদালতের নির্দেশে এবছর আর পুজোয় ঘুরে ঘুরে ঠাকুর দেখা উপায় নেই।  যতদিন যাচ্ছে, রাজ্যের করোনার গ্রাফও যেন ততই উর্ধ্বমুখী হচ্ছে। দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা নয়া রেকর্ড ছুঁল বৃহস্পতিবার, মহাষষ্ঠীর দিনে। শুধু তাই নয়, সামান্য হলেও কমল সুস্থতার হারও।

আরও পড়ুন: শীত ও বায়ুদূষণের জেরে বিপদের হাতছানি, করোনা সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কা প্রকাশ এইমস অধিকর্তার

রোজকার মতো বৃহস্পতিবারও করোনা বুলেটিন প্রকাশ করেছে রাজ্য স্বাস্থ্য় দপ্তর। সরকারি পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ১৫৭ জন।  কলকাতায় সংখ্যাটা ৮৭৪। দ্বিতীয় স্থান রয়েছে উত্তর ২৪ পরগণা। এই জেলায় একদিনে সংক্রমণ ধরা পড়েছে ৮৬৪ জনের। আর মৃত্যু? বৃহস্পতিবার মারা গিয়েছেন ৬৪ জন। বাংলায় এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লক্ষ ৩৭ হাজার  ২৮৩ জন। প্রাণ হারিয়েছেন ৬ হাজার ৩০৮ জন।  এদিকে আবার বুধবারের তুলনায় আবার কমেছে সুস্থতার হারও।

আরও পড়ুন: মণ্ডপে মণ্ডপে কড়া নজরদারী, ষষ্ঠী থেকে আরও কড়া লালবাজারের টহল থেকে পাহারা

বস্তুত, উৎসবের মরশুমে  যে করোনা পরিস্থিতি আরও অবনতি ঘটবে, সে আশঙ্কা করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা। সংক্রমণ রুখতে এবার রাজ্যের সমস্ত পুজো মণ্ডপগুলিতে 'নো এন্ট্রি জোন' ঘোষণা করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। বহিরাগত দর্শনার্থীদের মণ্ডপে প্রবেশে জারি  করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা। সেইসঙ্গে বাইরে বেরোলেই মাস্ক পরা ও স্যানিটাউজার ব্যবহারের কথাও বলা হচ্ছে। কিন্তু সকলকেই কি আর তা শুনছেন! মাস্ক না পরেই রাস্তায় চলাফেলা করছেন অনেকেই।  স্বাভাবিক কারণে উদ্বেগও বাড়ছে সরকারের।