কলকাতা বিমানবন্দরে চালু হল মালপত্র পরীক্ষার নতুন ব্য়বস্থা, আইএলবিএস অর্থাৎ ইন-লাইন ব্যাগেজ সিস্টেম।  আন্তর্জাতিক রুটে ইন্ডিগোর ঢাকাগামী উড়ানের সমস্ত যাত্রী এই সুবিধা পেলেন। আজ বুধবার থেকে ধাপেধাপে সমস্ত আন্তর্জাতিক উড়ানের যাত্রীরাই এই সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

আরও পড়ুন, আজও শীতের ব্যাটিং অব্যাহত, কাল থেকে ফের বাড়বে তাপমাত্রা

সূত্রের খবর, কলকাতা বিমানবন্দরের অধিকর্তা কৌশিক ভট্টাচার্য জানিয়েছেন,  আজ বুধবার থেকে এক এক করে সমস্ত আন্তর্জাতিক উড়ানের যাত্রীদের ১৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে এই পরিষেবার আওতায় আনা হবে। দেশের অভ্যন্তরীণ উড়ানগুলির ক্ষেত্রে ১৭ তারিখ থেকে শুরু হবে এই পরিষেবা। কৌশিকবাবু আরও জানিয়েছেন, অভ্যন্তরীণ উড়ানের সমস্ত যাত্রীকে এই পরিষেবার আওতায় আনতে  ২৪ ফেব্রুয়ারি অবধি সময় লাগবে। অবশ্য় কলকাতায় 'এ'  চেক-ইন পোর্টালে কনভেয়ার বেল্ট নিয়ে কিছু সমস্যা থাকায় আপাতত গো এয়ার এবং এয়ার এশিয়া ইন্ডিয়ার যাত্রীরা এই সুবিধা পাবেন না বলেও অধিকর্তা জানিয়েছেন। ওই যাত্রীদের জন্য পোর্টালের সামনে একটি এক্স-রে মেশিন রাখা থাকবে।

বিশ্বের বিভিন্ন বড় শহরে, এমনকি ভারতের কয়েকটি বিমানবন্দরেও অনেক আগে থেকে এই ব্যবস্থা চালু রয়েছে। এই ব্যবস্থায় যাত্রীরা বিমানবন্দরে ঢুকে মালপত্র নিয়ে সরাসরি চেক-ইন কাউন্টারে চলে যান। এবং সেখানেই ব্যাগ তুলে দেন উড়ান সংস্থার হাতে। সেই ব্যাগ কনভেয়ার বেল্টে করে বিমানের কাছে পৌঁছনোর আগেই স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থায় এক্স-রে হয়ে যায়। কিন্তু কলকাতা বিমানবন্দরে এই ব্যবস্থা না থাকায় এত দিন টার্মিনালে ঢুকে আলাদা করে রাখা এক্স-রে মেশিনে ব্যাগ পরীক্ষা করিয়ে তার পরে যাত্রীদের চেক-ইন কাউন্টারে যেতে হত। এতে সময়ও যেত, তার উপর যাত্রীদের উৎকন্ঠাও বাড়ত। উল্লেখ্য় এর আগে কলকাতায় আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে এক বারই পরীক্ষামূলক ভাবে ইন-লাইন ব্যবস্থা চালু হয়েছিল। কিন্তু মাস ছয়েক আগে নিরাপত্তার কারণে তা বন্ধ করে দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন, পার্কসার্কাসে ট্রেনে ধোঁয়া, আগুন-আতঙ্কে নেমে পড়লেন যাত্রীরা

তবে কলকাতা বিমানবন্দর ক্রমশই উন্নত হচ্ছে। কারণ আগের মাসে ঘোষণা করা হয়েছিল, বিমানবন্দরের ট্যাক্সি বে-তে লেভেল ক্রসিং বসতে চলেছে। কলকাতা বিমানবন্দরে রানওয়ের উত্তরদিকে মসজিদ থাকায় এতদিন পর্যন্ত, প্রধান রানওয়ে থেকে বিমান ট্যাক্সি বে-তে যেতে গেলে দ্বিতীয় রানওয়েতে বিমান ওঠানামা বন্ধ রাখতে হত। আর এবার মসজিদের রাস্তায় লেভেল ক্রসিং বসানোর মাধ্য়মে প্রধান রানওয়ের সঙ্গে সরাসরি ট্যাক্সি বে যোগ করা হবে। তারই সঙ্গে ফেস  রেজিস্ট্রেশন করার মত বাড়তি সুবিধা। এক্ষেত্রে কোনও প্রয়োজন নেই কোনও কাজগপত্রের। তাই শুধু মুখ দেখিয়েই ঢোকা যাবে কলকাতা বিমানবন্দরে।বিমানবন্দরের ২এ এবং ২বি এই দুই গেটেই ফেস রেজিস্ট্রেশন করার ব্য়বস্থা করা হবে। বিমানযাত্রীর কাছের থেকে তার তথ্য় চেক করবে ডিজিট্য়াল পদ্ধতি এবং সেখানেই একই সঙ্গে  ফেস  রেজিস্ট্রেশন করা হবে।