লকডাউন কিছুটা শিথিল হতেই রাস্তায় ভিড় জমছে। এই পরিস্থিতিতে চতুর্থ দফার লকডাউনের মেয়াদ শেষ হওয়ার মুখে। তবে এখনও লকডাউন তোলার পক্ষে নয় রাজ্য সরকার। কেন্দ্রীয় ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গৌবার সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে জানালেন মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা। এই পরিস্থিতিতে, কেন্দ্রকে এখনই লোকাল ট্রেন চালু না করতে অনুরোধ করল নবান্ন। 

আরও পড়ুন, যাত্রীদের যেতে হবে না দূরে, কলকাতা বিমানবন্দরের পুরনো টার্মিনালই এখন কোয়রান্টিন কেন্দ্র

 

 রাজ্য সরকার মনে করছে, এখনই লকডাউন তুললে বাড়তে পারে সংক্রমণ। পাশাপাশি, রাজ্য যে এখনই লোকাল ট্রেন চালাতে রাজি নয়, তাও স্পষ্টভাবে জানানো হয়েছে।লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি, আমফান পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে বৃহস্পতিবার নবান্নে ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গৌবার সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে বৈঠক করেন মুখ্যসচিব।এই বৈঠকে রাজীব সিনহা জানান, বর্তমান পরিস্থিতিতে লকডাউন প্রত্যাহার সমীচিন হবে না বলেই মনে করছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার।

আরও পড়ুন, আমফানের রেশ যেতে না যেতেই ফের দুর্যোগ, প্রবল ঝড়-বৃষ্টিতে রাজ্যে মৃত ৩


অপরদিকে,  বিশেষজ্ঞদের মতে, শিয়ালদা ও হাওড়ার লোকাল ট্রেনই বিশাল সংখ্যক মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রেণীর যোগাযোগের একমাত্র অবলম্বন। লকডাউনের জেরে ২ মাসের বেশি বন্ধ এই লোকাল ট্রেন পরিষেবা। যার জেরে শহরতলি ও পার্শ্ববর্তী জেলাগুলি থেকে বিপুল সংখ্যক মানুষ কলকাতায় আসতে পারছেন না। রোজগারের সন্ধানেই আসেন প্রচুর মানুষ। দীর্ঘদিন লকডাউন থাকায় তাদের শেষ সঞ্চয়টুকুও হারিয়েছেন। তাই লোকাল ট্রেন চালু হলেই সকলে কলকাতায় আসবেন রোজগারের সন্ধানে। তখন সংক্রমণ রুখতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা একেবারেই সম্ভব হবে না। তাই লকডাউন আরও কিছুটা শিথিল করলেও এখনই লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু না করার পরামর্শ দিল নবান্ন।

আরও পড়ুন, বৃহস্পতিবার কলকাতা মেট্রোর ট্রায়াল রান শুরু, সংক্রমণ রুখতে চালু শুধুই স্মার্ট কার্ড