অবশেষে কলকাতার বাজারে পঞ্চাশ টাকায় নামল পেঁয়াজের দর। পুজোর আগে মোটামুটি এই দামেই বিক্রি হচ্ছিল পেঁয়াজ। তখন থেকেই দাম বাড়তে বাড়তে একশো পেরিয়ে কেজি প্রতি দেড়শো টাকায় পৌঁছে গিয়েছিল পেঁয়াজের দাম। ফলে আবার তা পঞ্চাশ টাকায় ফিরে আসায় অনেকটাই স্বস্তি পেয়েছে মধ্যবিত্ত। 

পাইকারি পেঁয়াজ বিক্রেতারা বলছেন, নাসিক এবং বেলারি থেকে এখন নিয়মিত পেঁয়াজ আসছে। ফলে পাইকারি বাজারেও পেঁয়াজের দাম কমেছে। যার প্রভাবে খুচরো বাজারেও নাম অনেকটাই কমেছে। একটি সর্বভারতীয় ইংরেজি দৈনিকের খবর অনুযায়ী, আপাতত কলকাতার পাইকারি বাজারে মান অনুযায়ী পেঁয়াজের কেজি প্রতি দর ২২.৫০ থেকে ৩৫ টাকার মধ্যে ঘোরাফেরা করছে। 

আরও পড়ুন- পেঁয়াজের অগ্নিমূল্য, বিতর্ক গড়ালো আমুল গার্লের বাড়িতেও

আরও পড়ুন- 'দিদিকে বলো'- র প্রচারে গরম উপহার, কম্বলের সঙ্গে পেঁয়াজ বিলি বিধায়কের

মঙ্গলবার কলকাতায় বড় পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৫৫ টাকা কেজি দরে। আর মাঝারি দরের পেঁয়াজের দাম ছিল কেজি প্রতি ৫০ টাকা। ব্যবসায়ীদের আশা, যেভাবে জোগান বাড়ছে তাতে আগামী কয়েকদিনে পেঁয়াজের দর আরও কিছুটা কমবে। 

নাসিক, বেলারি থেকে পেঁয়াজের জোগান স্বাভাবিক থাকলে দিনে চল্লিশ থেকে পঞ্চাশটি করে ট্রাক কলকাতায় আসে। মঙ্গলবার পেঁয়াজ নিয়ে কলকাতায় এসেছে ৩৫টি ট্রাক। ফলে ধীরে ধীরে জোগানও স্বাভাবিক হচ্ছে। 
যদিও এখনও কলকাতা এবং শহরতলির বেশ কিছু বাজারে ষাট টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। পাইকারি ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, অতিরিক্ত লাভের জন্যই কিছু অসাধু খুচরো ব্যবসায়ী ক্রেতাদের থেকে অতিরিক্ত দাম নিচ্ছেন। 

ডিসেম্বর মাসের শুরুর দিকেই কলকাতায় পেঁয়াজের দর ১৫০ থেকে ১৬০ টাকায় পৌঁছে গিয়েছিল। সেকথা মনে করলে বলতেই হবে, পেঁয়াজের ঝাঁঝে চোখে জল এলেও পকেটের চাপ অনেকটাই কমেছে। '