রাজ্য়ের একটি বায়োটেক ফার্ম স্বল্প মূল্য়ে করোনার টেস্ট কিট তৈরি করেছে। যার দাম মাথা পিছু পরীক্ষার জন্য মাত্র ৫০০ টাকা।  যার প্রত্যেকটি  কলকাতায়,  সংস্থার পরীক্ষাগারে তৈরি করা হয়েছে।এই কিটটি ইতিমধ্য়েই ওড়িশা এবং আসামের মতো প্রতিবেশী রাজ্যগুলিতে সরবরাহ শুরু করেছে।

আরও পড়ুন, টানা ৩৮ দিন ভেন্টিলেশনে থেকে করোনাকে হারিয়ে বাড়ি ফিরলেন টালিগঞ্জের প্রৌঢ়, মিরাকল বলে দাবি চিকিৎসকদের

 
 জিসিসি বায়োটেকের ম্য়ানেজিং ডিরেক্টর রাজা মজুমদার জানিয়েছেন, 'এটি এক দিনের মধ্য়েই সংক্রমণ সনাক্ত করতে পারে এবং ফলাফল দিতে মাত্র ৯৫ মিনিট সময় নেয়।' তিনি আরও বলেন, 'এটি বাইরে থেকে মোটেই সংগ্রহ করা হচ্ছে না।  কলকাতায় এটি আমাদের দল তৈরি করছে। আইসিএমআর-এর নির্দেশ অনুযায়ী কোনও প্রাইভেট ল্য়াবই ৪৫০০ টাকার উপরে নিতে পারবে না। সেদিক থেকে আমাদের এই কিট মাত্র ৫০০ টাকা পাওয়া যাবে। এবং আমরা এই মুহূর্তে প্রতিমাসে এক কোটি পরীক্ষা করার মতো অবস্থানে রয়েছি।'

প্রসঙ্গত করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে সম্প্রতি রাজ্য়ে এসেছিল কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল। রাজ্যে কম সংখ্য়য় পরীক্ষা চালানোর জন্য অভিযোগও  উঠেছিল। পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা সহ রাজ্য সরকারের শীর্ষ নেতারা বেশ কয়েকবার কেন্দ্রীয় সরকারকে পরীক্ষার জন্য পর্যাপ্ত কিট সরবরাহ না করার অভিযোগও করেছেন। রাজ্য সরকারের তরফে ১০,০০০ টি ত্রুটিযুক্ত কিট আইসিএমআরকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। এমন সময় পরিস্থিতিকে অনুকূলে আনতে এই কিটটি সাহায্য় করবে বলে সংস্থার তরফে আশা করা হচ্ছে। ইতিমধ্য়েই ওড়িশা এবং আসামের মতো প্রতিবেশী রাজ্যগুলিতে এই কিটটি সরবরাহ শুরু করেছে।
 

 

'যোদ্ধারা সমরে-করোনা দূরে', ফের সচেতনতামূলক পথচিত্র আঁকল বেলেঘাটা ৩৩ পল্লী

বেহালা হাসপাতালের প্রসুতির শরীরে মিলল এবার করোনার জীবাণু, কেপিসি-র ৩ রোগীর রিপোর্টও পজিটিভ

রোগী ফেলে পালাতে পারল না অ্যাম্বুল্যান্স, পিপিই পরা স্বাস্থ্য়কর্মীদেরকে তীব্র প্রতিবাদ নাকতলাবাসীর