করোনা আক্রান্ত হলেন এবার বেহালার হাসপাতালের প্রসূতি। বেহালার বিদ্যাসাগর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে এক প্রসূতির শরীরে মিলল করোনাভাইরাসের জীবাণু।  নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট আসতেই বন্ধ করে দেওয়া হল হাসপাতালের শিশু ও মহিলা শল্য বিভাগ।

আরও পড়ুন, 'সন্তানের দুধ কেনার টাকা নেই-খুব কষ্টে আছি আমরা', মাসিক বেতন দেওয়ার অনুরোধ জানাল বিগবাজারের এক স্টাফ

জানা গিয়েছে, বেহালার বিদ্যাসাগর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে এক প্রসুতির করোনা উপসর্গ দেখা দেওয়ায় চিকিৎসকদের সন্দেহ হয়। তাঁর নুমনা পরীক্ষার রিপোর্ট পাঠানো হয়। ওই প্রসুতির করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে।  এরপর দ্রুতই বন্ধ করে দেওয়া হয় হাসপাতালের শিশু ও মহিলা শল্য বিভাগ। ওই প্রসুতির সংস্পর্শে আসা প্রত্য়েকেই পাঠানো হবে কোয়েরেন্টিনে। উল্লেখ্য়, যাদবপুর কেপিসি মেডিক্যাল কলেজের স্ত্রীরোগ ও প্রসূতি বিভাগে চিকিৎসাধীন তিন প্রসূতিরও করোনা রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে।

আরও পড়ুন, রবীন্দ্র জয়ন্তীতে রবীন্দ্র সঙ্গীতের সঙ্গে চালাতে হবে মুখ্যমন্ত্রীর লেখা গান, নির্দেশ রাজ্য়ের

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার রাতে যাদবপুর কেপিসি মেডিক্যাল কলেজের স্ত্রীরোগ ও প্রসূতি বিভাগে চিকিৎসাধীন তিন প্রসূতিও করোনা আক্রান্ত।  তাঁরা প্রত্যেকেই সন্তানসম্ভবা ছিলেন। এদিকে সেই সময় কোনরকম উপসর্গ তাঁদের ছিল না। সিজার করে সন্তানের জন্ম হয়। তবে  অস্ত্রোপচারের আগে রুটিন চেকআপ করতে গিয়ে চিকিৎসকরা করোনা পরীক্ষা করেন। আর তারপরই  চিন্তায় পড়ে যায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তিন প্রসূতিই করোনা রিপোর্ট পজেটিভ। তবে তাঁদের সন্তান প্রত্যেকেই সুস্থ স্বাভাবিক।  

 

 

 

রাজ্য়ে করোনা আক্রান্তের অর্ধেকের বেশি কলকাতার,৭০০ থেকে একদিনে ৭৫৪

করোনার থাবায় বন্ধ বাঘাযতীনের এক নার্সিংহোম, স্যানিটাইজেশনে বাঘাযতীন হাসপাতাল

করোনা উপসর্গ সহ মিজোরামের বাসিন্দার মৃত্য়ু হল কলকাতায়, ক্যানসারের জন্য় তিনি ছিলেন চিকিৎসাধীন

রোগী ফেলে পালাতে পারল না অ্যাম্বুল্যান্স, পিপিই পরা স্বাস্থ্য়কর্মীদেরকে তীব্র প্রতিবাদ নাকতলাবাসীর