কোভিড আবহে ঘূর্ণীঝড় বিধ্বস্ত দক্ষিনবঙ্গকে নতুন রূপ। একদিকে কোভিডের মোকাবিলা এবং অন্যদিকে যশ (Yaas) বিধ্বস্ত দক্ষিনবঙ্গকে পুনরায় আগের রূপ ফিরিয়ে আনা, জেলা প্রশাসনের কাছে এক বড় চ্যালেঞ্জ। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছেন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলাশাসক ডক্টর পি উলগানাথন। 

আরও পড়ুন, Live Covid- 'টিকাকরণে দেশের প্রথম স্থানে পশ্চিমবঙ্গ', দাবি মুখ্যমন্ত্রীর, কবে টিকা নিচ্ছেন মমতা  


বুধবার একটি  বেসরকারি কোম্পানির পক্ষ থেকে ২ টি অক্সিজেন কনসেনট্রেটর মেশিন তুলে দেওয়া হয় জেলা শাসকের হাতে। তিনি জানান, অতিমারির মোকাবিলা করার জন্য এখনও পর্যাপ্ত পরিমাণে প্রয়োজন অক্সিজেন কনসেনট্রেটরের। রাজ্য সরকারের পাশাপাশি এই কাজে হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা থেকে শুরু করে বেসরকারি কোম্পানিগুলোও। সেই মেশিনগুলো সংগ্রহ করে সরাসরি প্রয়োজন অনুসারে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন ব্লকে। পাশাপাশি দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলাশাসক আরও জানান, আগামীকাল থেকেই শুরু হবে রাজ্য সরকারের 'দুয়ারে ত্রাণ' কর্মসূচি। প্রত্যেক ব্লকে সেই কাজ যেন সুষ্ঠভাবে হয়, সেই বিষয়েও লক্ষ্য রাখা হবে।

আরও পড়ুন, 'আলাপন অধ্য়ায় শেষ এবার', নবান্নে বার্তা মমতার 

অপরদিকে,  যশ (Yaas) বিধ্বস্ত এলাকাগুলোতেও পুনর্গঠনের কাজে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে জেলা প্রশাসন যে রীতিমতো প্রথমসারির ভূমিকা রাখছে, তাও উল্লেখ করেন জেলাশাসক। সুন্দরবনের বিস্তীর্ণ এলাকায় নতুন করে ম্যানগ্রোভ গাছ লাগানোর ওপরেও জোর দেওয়া হচ্ছে।