রাজ্য়ের  আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি উদ্বেগজনক বলতেই এবার রাজ্য়পালের বিরুদ্ধে সরব হল তৃণমূল। প্রচারে আলোয় থাকতেই এসব করছেন রাজপাল। এমনই মন্তব্য় করলেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।  

বিয়েতে বাধা ইয়েস ব্যাঙ্ক, ঘর ছেড়ে টাকার লাইনে কনে

শুক্রবারই দিল্লিতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধানখড়। বৈঠকের পর তাঁর টুইট ঘিরে শুরু হয়েছে রাজ্য়-রাজ্য়পাল সংঘাত। টুইটে রাজ্য়পাল  বলেছেন, 'রাজ্যের পরিস্থিতি যথেষ্ট উদ্বেগজনক। সাতমাস ধরে যা দেখেছি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানিয়েছি।' জগদীপ  ধনখড়ের এই টুইট নিয়ে  পাল্টা আক্রমণে নেমেছে শাসক দল। এ বিষয়ে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্ট্যোপাধ্যায় বলেন, উনি পুরোনো কাসুন্দি ঘাটছেন৷ ওনার প্রতিদিনই মুখ দেখানো চাই৷ একটা না একটা নিয়ে ট্যুইট করতে হবে,তাই এই বিতর্কে আমি ঢুকতে চাই না৷

কমেই চলেছে পেট্রোলের দাম, শীঘ্রই ছোঁবে ৭২ টাকা

গতকালই তিরিশ মিনিটের বেশি সময় ধরে সংসদের হাউসে অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করেছেন রাজ্য়পাল। এরপরই টুইট করেছেন তিনি।  সূত্রের খবর, বৈঠকে রাজ্যের সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। বাংলায় বিভিন্ন ভোটে হিংসার কথা  উল্লেখ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে পদক্ষেপ করার আর্জি জানিয়ে এসেছেন রাজ্যপাল। এমনকী, শাসকদলের দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরব হন তিনি। 

করোনা ভাইরাস আতঙ্ক, মাস্কের কালোবাজারি রুখতে কড়া পদক্ষেপ পুলিশের

তবে এই প্রথমবার নয়,অতীতেও বার বার রাজ্য়ের সঙ্গে সংঘাতে জড়িয়েছেন রাজ্য়পাল জগদীপ ধনখড়।সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রীর দিকে নিশানা করে খোঁচা দিতে  ছাড়েননি। কদিন আগেই দিল্লির হিংসাকে পরিকল্পিত গণহত্যা বলেছিলেন তৃণমূল নেত্রী। নাম না করে মমতার সেই উক্তির জবাব দিয়েছেন রাজ্য়পাল। 

কদিন আগে হাওড়ার এক অনুষ্ঠানে ধনখড় বলেন, সব ধরনের হিংসাই নিন্দনীয় হওয়া উচিত। বাছাই করে কোনও হিংসার নিন্দা করা উচিত নয়।  হিংসার বিষয়ে রাজনৈতিকভাবে ভেদাভেদ থাকা উচিত নয়। এই বিভেদ মেনে নেওয়া যায় না। এই বলেই অবশ্য থেমে থাকেননি ধনখড়। রাজ্য়পাল বলেন, দিল্লির হিংসার নিন্দা করলে, পশ্চিমবঙ্গের হিংসার ঘটনাগুলোকেও নিন্দা করুন। হিংসাকে রাজনৈতিকভাবে আলাদা করা উচিত নয়। পশ্চিমবঙ্গের হিংসার ঘটনাগুলো তো আমাকেও দুঃখ দিয়েছে। আমি বরাবরই এই হিংসা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছি।