সামনেই পুজো। কুমোরটুলি চত্বর জুড়ে প্রতিবছরই এই সময় বিভিন্ন থিম থেকে শুরু করে বিজ্ঞাপনের শ্যুটিং হয়ে থাকে। এ নতুন কিছু নয়। কিন্তু সেই ট্রেন্ডকেই এবার কটাক্ষ করতে সোশ্যাল মিডিয়ার একটি পেজে মিম বানানো হল।  যেখানে দেখা যায় বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় দূর্গা থিমের ছবিকে বিকৃত করা হয়েছে। মিমটি পোস্ট করা মাত্রই তা নজরে আসে নৃত্যশিল্পী সঞ্চিতা ভট্টাচার্যের। কারণ তারই মাঝে একটি ছবি ছিল ওঁনার নিজের।

আরও পড়ুনঃ মিতিন মাসির মুখোমুখি এবার ব্যোমকেশ, পাল্লা দিয়ে মুক্তি পেল ছবির টিজার

২০০৫ সালে তোলা এই ছবি এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় যত্রতত্র পাওয়া যায়। তা নিয়ে রীতিমতন গর্বও বোধ করেন সঞ্চিতা। নিজের দেশের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে ওই ছবির মধ্যে দিয়ে তুলে ধরতে পেরে সঞ্চিতা ভট্টাচার্য বেশ খুশি হয়েছিলেন। সেই ছবি ব্যবহারও করা হয়েছে বহু জায়গায়। কিন্তু এবার সেই ছবি মিম-এর শিকার হওয়ায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন নৃত্যশিল্পী। প্রকাশ্যেই সরব হলেন তিনি। দেশের সংস্কৃতিকে বিকৃত করে তা উপস্থাপনা করা নিয়ে প্রশ্নও তোলেন এদিন সঞ্চিতা। 

মিতিন মাসিঃ 'মেয়েছেলে ডিটেকটিভ'! সংশয় দূর করতে সরব মিতিন মাসি, দেখুন ছবির টিজার

জনপ্রিয় এই নৃত্যশিল্পী মিমটি দেখা মাত্রই লালবাজারের সাইবার ক্রাইমের দ্বারস্থ হয়েছেন। এই মিম-এ একাধিক মডেলদের ছবি ব্যবহার করা হয়। তাঁদের সকলের হয়েই প্রতিবাদে সরব হয়েছেন তিনি।  সোমবার লালবাজার সাইবার ক্রাইম বিভাগের ডিসিপি অপরাজিতা রাই-এর কাছে বিস্তারিত তথ্য দিয়ে  লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। ছবিটি বর্তমানে নিজেদের পেজ থেকে সরিয়ে নিয়েছে এই গ্রুপ। কিন্তু তা রাতারাতি শেয়ার হয়েছিল ২ হাজার। কমেন্ট পড়ে ৩ হাজারের বেশি। সেখানেও এই ছবি ঘিরে কুরুতিকর মন্তব্য দেখে রীতিমত মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন তিনি।

আক্ষেপের সুরে এদিন সঞ্চিতা ভট্টাচার্য এশিয়ানেট নিউজ বাংলা-কে জানান,- 'এই ছবি দেশের সংস্কৃতিকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরে। তা নিয়ে এই ধরনের মিম তৈরি করাটাকে তীব্র নিন্দা জানাই। এই ছবি তোলার পর থেকে তা বহু জায়গায় বহু ভালো কাজে ব্যবহৃত হয়েছে, তা নিয়ে গর্বও অনুভব করি। মাতৃপ্রতিমা নিয়ে এই ধরনের চিন্তা কিছু ধরনের মানুষ যে পোষণ করেন তা ভাবলেই অবাক লাগে।' সঙ্গে তিনি আরও বলেন, 'নতুন অনেক মডেল আছেন যাঁরা কাজ শুরু করছেন, তাঁদের ওঠে দাঁড়ানোর আগেই যদি এই ধরনের ঘটনার শিকার হতে হয়, তবে কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে আমাদের সংস্কৃতি! সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ধরনের মিম বানিয়ে পোস্ট করা বন্ধ হক, আমি চাই দেশ জুড়ে প্রতিবাদের আলোড়ন উঠুক।'