শুভজিৎ পুতুতণ্ড, বারাসত-বাইপাসের ধারে জমি দেখিয়ে কোটি কোটি টাকার প্রতারণা। শুধু তাই নয়, ভূমি ও ভূমি সংস্কার দফতরের অফিস থেকে ভুয়ো কাগজপত্র তৈরি করে ব্যবসায়ীদের দেখিয়ে টাকা লুঠ। এক ব্যাবসায়ীর অভিযোগের ভিত্তিতে বড়সড় জমি মাফিয়া চক্রের হদিশ পেল পুলিশ। একজন গ্রেফতার হতেই বেরিয়ে আসতে থাকল রাঘব বোয়ালদের নাম। শুধু তাই নয় ভয় দেখিয়ে হুমকি দিয়েও জমি দখলের চেষ্টা করত অভিযুক্তরা। ঘটনায় সাত জন জমি মাফিয়াকে গ্রেফতার করল বিমানবন্দর থানার পুলিশ। ধৃতদের মধ্য়ে একজন বিএলআরও অফিসের কর্মীও রয়েছেনে।

আরও পড়ুন-পড়াশুনা করতে বিনা খরচে মোবাইল, ইন্টারনেট দাবি, প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিল পড়ুয়ারা

পুলিশ সূত্রে খবর, বেলঘরিয়া এক্সপ্রেসওয়ের ধারে যে সব ফাঁকা জমি রয়েছে। সেগুলির জাল নথিপত্র তৈরি করল অভিযুক্তরা। এরপর কোনও ব্যবসায়ীকে তাদের ফাঁদে ফেলে কোটি কোটি টাকায় জমি বিক্রির চেষ্টা করা হয়। ওই জমি মাফিয়াদের জালে প্রতারণার শিকার হয়েছিলেন কলকাতার এক ব্যবসায়ী। ২ কোটি ১৮ লক্ষ টাকা প্রতারণার অভিযোগ করেন তিনি। 

আরও পড়ুন-রূপলী শস্য়ের জন্য আর অপেক্ষা নয়, এবার গ্রামের পুকুরেই মিলবে ইলিশ

নামী ব্যবসায়ীর অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করে বিমানবন্দর থানার পুলিশ। প্রথমে সুজয় নামে এক জমি মাফিয়া গ্রেফতার হয়। পরে নাম জড়ায় ভূমি ও ভূমি সংস্কার দফতরের এক কর্মীর। তাদের জেরা করে একে একে সাত জন রাঘবোয়ালের হদিশ পায় পুলিশ। বড়সড় জমি মাফিয়া চক্রের পর্দা ফাঁস করে পুলিশ। ধৃতদের বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ।
আরও পড়ুন-তোলাবাজি থেকে রেহাই পেলেন না খোদ দলীয়কর্মী, চাঞ্চল্যকর অভিযোগ বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে