কলকাতায় এসেছেন সচিন। আর পতাকা নেড়ে কলকাতা ম্যারাথনের শুভ সূচনা করলেন তিনি। ম্যারাথনে অংশ নেওয়া সদস্য় এবং সচিন অনুরাগীদের জমায়েতে এক অন্য়রকম মুহূর্ত সৃষ্টি হল কলকাতায়। সচিনের সব ভক্তরাই তাদের প্রিয় ক্রিকেটারকে হাত ছুঁতে আগ্রহী।

আরও পড়ুন, 'আমি স্তম্ভিত', মোদী সরকারের বাজেটে কড়া প্রতিক্রিয়া মমতার


এবছর আইডিবিআই কলকাতা ম্যারাথনে অংশগ্রহণ করেছেন মোট ১৬০০ জন সদস্য। মোট তিনটি ভাগে এই ম্যারাথন আয়োজন করা হয়েছে। ফুল ম্যারাথন দৌড় ৪২ কিলোমিটার. হাফ ম্যারাথন ১০ কিলোমিটার. আরেকটি হল পাঁচ কিলোমিটারের। এই ম্যারাথন দৌড়ের ফ্ল্যাগ অফ করেন মাস্টার ব্লাস্টার সচিন রমেশ তেন্ডুলকার। তারপরেই শুরু হয়  ১৬০০ জনের কলকাতা ম্য়ারাথন দৌড়ে। 

আরও পড়ুন, জাঁকিয়ে শীত কলকাতায়, শিলাবৃষ্টির সম্ভাবনা উত্তর ভারতে

একজন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার, ক্রিকেট ইতিহাসের সর্বোচ্চমানের ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত। শচীনের মাত্র ষোলো বছর বয়সে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হয়।এরপর থেকে প্রায় চব্বিশ বছর তিনি আন্তর্জাতিক স্তরে ভারতের হয়ে ক্রিকেট খেলেন। তিনি টেস্ট ক্রিকেট এবং একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলায় সর্বোচ্চ-সংখ্যক শতকের অধিকারীসহ বেশ কিছু বিশ্বরেকর্ড ধারণ করে আছেন। তিনি প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা ও টেস্ট ক্রিকেট ম্যাচ মিলিয়ে শততম শতক করেন। বাংলাদেশের বিপক্ষে ২০১২ সালের এশিয়া কাপ চারদেশীয় ক্রিকেট ম্যাচে তিনি এই রেকর্ড করেন।একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার ইতিহাসে প্রথম দ্বিশতরানের অধিকারী তিনি। ২০১৩ খ্রিষ্টাব্দের ৫ই অক্টোবর, তিনি সমস্ত ধরণের স্বীকৃত ক্রিকেট খেলায় প্রথম ভারতীয় হিসেবে মোট ৫০,০০০ রানের মালিক হন।