ঢাকে পড়ে গিয়েছে কাঠি। শরতের নীল আকাশ আর কাশ ফুল জানান দিচ্ছে মা আসছে। মা আসার সেই আনন্দ মেতে উঠেছে শহর কলকাতা। সেই সঙ্গে শুরু হয়ে গিয়েছে পুজোর প্রস্তুতিও। দূর্গোৎসবের কাজ পুরোদমে শুরু হয়ে গিয়েছে সারা বাংলা-সহ সমস্ত হিন্দু সম্প্রদায়ভুক্ত অঞ্চলে। সারা বছর কাজে ব্যস্ত থাকলেও, পুজোর দিনগুলি সকলে মিলে একসঙ্গে আনন্দ করে সময় কাটান সকলেই। আর এই আনন্দ অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি পর্বে সামিল হয়েছে সল্টলেকে সেক্টর ওয়ানের এসি ব্লক।

দেখে নিন- নাম লেখাননি এখনও, দেরি না করে অংশ নিন এশিয়ানেট নিউজ শারদ সম্মান ২০১৯-এ

আরও পড়ুন- ১০৭ বছরে পা! এবছর সিকদার বাগান সাধারণ দূর্গোৎসবের থিমে থাকছে বিশেষ বার্তা

সল্টলেকের সেক্টর ওয়ানের এসি ব্লক  রেসিডেন্টস এসোসিয়েশনের দুর্গোৎসব এবার ৪২ তম বর্ষে পদার্পণ করল। এই বছরে বাঙালির অতি পরিচিত ও প্রিয় একটি জায়গায় অনুকরণে তৈরি হচ্ছে এসি ব্লকের পুজোর মূল আকর্ষণ।  এই জায়গা বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরেরও অতি পছন্দের একটি স্থান। শান্তিনিকেতনের উপাসনাগৃহ, এই বছর এসি ব্লকের পূজোর থিম। এসি ব্লকের পূজো কমিটির উদ্যোক্তারা তাদের থিম নির্বাচনের কারণ সম্পর্কে জানিয়েছেন, বাঙালির মধ্যে শান্তিনিকেতন এর জায়গাটাই আলাদা। এই কথা মাথায় রেখেই এই বছর তারা এই থিম নির্বাচন করেছেন।

আরও পড়ুন- হারানো দিনের স্মৃতিতে মুখরিত কেন্দুয়া শান্তি সংঘ, জানালেন তাদের এবারের থিম

 তিনি আরও জানিয়েছেন, বাজেটের পুজোর বাজেটের কথা মাথায় রেখে সুষ্ঠভাবে পূজো সম্পন্ন করতে, এই থিম অনবদ্য। এ বছর এসি ব্লক রেসিডেন্টস এসোসিয়েশনের বাজেট ৭ লক্ষ টাকা। যা তুলনামূলক ভাবে তাদের আশেপাশের সমসাময়িক পুজোগুলোর তুলনায় কম। ঝাঁ চকচকে পুজোগুলির মধ্যে একেবারে অন্য স্বাদ নিতে চাইল আসতেই হবে সল্টলেকের মাঝে  এই এক টুকরো শান্তিনিকেতনে।