কোর্টে নির্দেশের পরে করোনা নিয়ে বেশ সতর্ক বাংলা। তবে তাঁর শাড়ি পড়ে ছবি তোলা আর বাদ যাবে কেন। আর বছরে এই দিন বিশেষ করে পাঞ্জাবী পরে অঞ্জলি দেওয়ার সুযোগ আসে বাঙালির। তাই করোনা আবহে ডিজিট্য়ালেই বেশি মেতেছে বাঙালি। আর এদিকে সশরীরে মহাঅষ্টমীতে বেহালা প্লেয়ার্স কর্নারএ সন্ধি পুজো দেখতে আসলেন সৌরভ গাঙ্গুলি। 

আরও পড়ুন, মহাঅষ্টমীতে সুখবর, সরছে নিম্নচাপ, নির্ভয়ে নতুন পোশাকে সোনা রোদে কাটান পুজো

 

 

শনিবার পুজোর মন্ডপে পাঞ্জাবিতে সৌরভ

তবে এবার করোনায় উৎসবের আবহ অনেকটাই ম্লান।  এদিকে চতুর্থী থেকেই নিজের এলাকায় পুজো উদ্বোধন দিয়ে শুরু করছেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তবে করোনা আবহে প্রতিবারের মত এবার একগুচ্ছ পুজো উদ্বোধনের কর্মসূচি নেননি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। চতুর্থীর সন্ধ্যায় বেহালা চৌরাস্তা প্লেয়ার্স কর্নার অর্থাৎ নিজের পাড়ার পুজোর উদ্বোধন করেছেন। কোভিডের কথা মাথায় রেখে খুব বেশি লোকের সমাগমও করা হয়নি। হাতে গোনা কয়েকজনকে নিয়েই হয় উদ্বোধন। একইসঙ্গে সকলকে পুজোয় সতর্কবার্তাও দিয়েছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। এবং শনিবার ফের সশরীরে মহাঅষ্টমীতে বেহালা প্লেয়ার্স কর্নারএ সন্ধি পুজো দেখতে আসলেন সৌরভ গাঙ্গুলি। পুরোপুরো বাঙালিয়ানা পাঞ্জাবিতে এলেন পাড়ার মন্ডপে।

 আরও পড়ুন, বৃষ্টিতে বিরিয়ানি থেকে তন্দুরি, রইল কলকাতার সেরা খাবারের ঠিকানার হদিশ


কোর্টের রায় নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি সৌরভ 


একইসঙ্গে সকলের উদ্দেশ্যে বার্তায় সৌরভ জানিয়েছেন, 'এবারের পুজো ঘরে বসে কাটান। সকলকে স্বাস্থ্য নিয়ে কোনওরকম ঝুঁকি নিতে নিষেধ করেন তিনি। সৌরভ বলেন, দুর্গা পুজা আগামী বছর আবার আসবে, তখন কোভিডও চলে যাবে। তখন সবাই মিলে আবার উৎসবে অংশ নেওয়া যাবে।' যদিও প্রতিমা দর্শন নিয়ে কোর্টের রায় নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি সৌরভ। 

 

 

আরও পড়ুন, পুজোতে মৃত্যু বাড়ল কলকাতায়, রেকর্ড সংক্রমণে মমতাকে সতর্কতা রাজ্যপালের