অনলাইনে টেবিল বিক্রি করতে গিয়ে প্রতারণার শিকার হলেন  বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী তথা শ্যামল মিত্রর পুত্র সৈকত মিত্র। এবার  কিউ আর কোডের   প্রতারণার ফাঁদে পা দিয়ে ৯৮ হাজার টাকা খোয়ালেন তিনি। অবশ্য় এখনও পর্যন্ত এই ঘটনায় কেউ গ্রেফতার হয়নি। লালবাজার সূত্রে জানা গিয়েছে, এই প্রতারণার পিছনে রাজস্থানের ভরতপুরের কোনও জালিয়াত চক্রের হাত থাকতে পারে।

আরও পড়ুন, লেক কালিবাড়িতে ধূমাবতী প্রতিষ্ঠা, দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড়

পুলিশি সূত্রে খবর, সৈকত মিত্রর এক বন্ধু তাঁদের বাড়িতে থাকা একটি কাঠের টেবিল ১৩ হাজার টাকায় বিক্রির জন্য ওএলএক্সে বিজ্ঞাপন দেন। সেই টেবিলের বিজ্ঞাপন দেখে  সাড়া মেলে উত্তর ভারত থেকে। এক ব্যক্তি ফোন করে জানায় তাঁর টেবিলটি পছন্দ হয়েছে ।  তার নিজের পরিচয় দিয়ে জানান তিনি একজন সেনাবাহিনীর অফিসার  ৷ টেবিলের দাম বাবদ ১৩ হাজার টাকা সে গুগল পে-এর মাধ্যমেই দিতে চান। কিন্তু সৈকতবাবুর ওই বন্ধুর গুগল পে অ্যাকাউন্ট ছিল না। তিনি এব্যাপারে সৈকতবাবুর সাহায্য নেন। এরপর দুটি মোবাইল নম্বর থেকে সৈকতবাবুর মোবাইলে  কিউ আর কোড পাঠানো হয়। সেই কোড  স্ক্যান করার পর একটি  লিঙ্ক পাঠানো হয় সৈকতবাবুর মোবাইলে। তারপরই ঘটনার সূত্রপাত। সেই লিঙ্কে ক্লিক করা সঙ্গে সঙ্গে সৈকতবাবুর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে দফায় দফায় ৯৮ হাজার টাকা কেটে নেওয়া হয়।

আরও পড়ুন, বাঘরোল হত্যায় হোক ৩ থেকে ৭ বছরের জেল,সওয়াল বন্য়প্রাণী কর্মী হিরক নন্দীর

লালবাজার সূত্রে জানা গিয়েছে, তদন্তকারীদের প্রাথমিক অনুমান এই ঘটনার পিছনে রাজস্থানের ভরতপুরের  বড় কোনও চক্র রয়েছে। উল্লেখ্য়, এর আগেও এটিএম স্কিমিং, পেটিএম, গুগল পে সহ বিভিন্ন মাধ্যমে গ্রাহকরা প্রতারিত হয়েছেন । তবে এবার সব কিছুকে ছাপিয়ে শুধু কিউ-আর কোড স্ক্যান করতেই টাকা উধাও হওয়ার ঘটনা ঘটল।