দাড়ি-গোঁফ ওয়ালা সাদা কালো একটা ছবি। অনুগামীদের দিকে হাত নাড়ছেন মুখে স্মিত হাসি। পিছনে দেখা যাচ্ছে স্ত্রী মীরা ভট্টাচার্যকে। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিশিষ্ট সিপিএম নেতা বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের এইরকমই একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। ছবিটির উপরে লেখা 'আমাদের সকলের প্রিয় বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য', নিচে লেখা 'আর নেই'। ইতিমধ্যে সকলেই জানেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে গুরুতর শ্বাসকষ্ট-সহ বুধবারই এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি কর হয়েছে। তাহলে সত্য়িই চলে গেলেন এই বর্ষীয়ান নেতা? অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া এই পোস্ট দেখে বিভ্রান্ত হয়েছেন।

প্রথমেই বলে রাখা যাক, এই খবর সম্পূর্ণ ভুয়ো। হাসপাতালের সর্বশেষ বুলেটিন অনুযায়ী, বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের অবস্থা আশঙ্কাজনক হলেও আপাতত স্থিতিশীল তিনি। আপাতত তাঁকে ভেন্টিলেশনেই রাখা হয়েছে, যদিও চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ধীরে ধীরে সিডেশন এবং ভেন্টিলেশন - দুই প্রক্রিয়া থেকেই তাঁকে বের করে আনা হবে। তবে রক্তে শ্বেতকণিকার মাত্রা বেশি থাকার কারণে তাঁর বলছেন সংক্রমণ এখনও রয়েছে।

আরও পড়ুন - রক্ত থেকে অক্সিজেন - নিয়ন্ত্রণে অনেক কিছুই, তবু সঙ্কট কাটেনি বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যর

আরও পড়ুন - কৃষক আন্দোলন - মনমোহন-বুদ্ধ ভট্টাচার্যের রাস্তাতেই চলেছেন নরেন্দ্র মোদী, পরিণতি কি একই হবে

আরও পড়ুন - জ্ঞান ফিরেছে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের, আজ সকালেই বসছে মেডিক্যাল বোর্ড

এবার প্রশ্ন হল তাহলে কি ওই পোস্টটি ভুয়ো? না, পোস্টটিকে একেবারে ভুয়ো বলা যাবে না। তবে এটি অবশ্যই একধরণের কুৎসিত রসিকতা। 'বেদনাতে ভরপুর' ক্যাপশন দিয়ে একধিক ব্যক্তি গত ২৪ ঘন্টায় এই ছবিটি পোস্ট করেছেন। এমনকী বেশ কিছু মানুষ সেই পোস্ট লাইক-ও করেছেন। ছবিটি বড় করলে দেখা যাবে, নিচে বড় বড় অক্ষরে 'আর নেই' লেখার আগে চোখে না পড়ার মতো ছোট হরফে লেখা রয়েছে 'তার বাড়িতে'। আর বড় অক্ষরে 'আর নেই'-এর পরে একইরকম ছোট অক্ষরে লেখা 'হাসপাতালে ভর্তি'। রাজনৈতিক পছন্দ-অপছন্দ থাকতেই পারে, কিন্তু কারোর মৃত্যু নিয়ে এই ধরণের রসিকতা কতটা শোভন, সেই প্রশ্ন উঠে গিয়েছে।