জীবন-মৃত্য়ুর লড়াই-এ অবশেষে চির বিদায় নিল ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী অঙ্কিতা দেবনাথ।   এসএসকেএম থেকে আর বাড়ি ফেরা হল না অঙ্কিতার। গত ৭ জানুয়ারি স্কুল যাওয়ার পথে আক্রান্ত হয় সোনারপুরের চম্পাহাটি এলাকার বাসিন্দা অঙ্কিতা। ধারাল অস্ত্র দিয়ে কোপানো হয় ওই ছাত্রীকে। জানা গিয়েছে, প্রেমে প্রত্যাখ্যান করলেই অঙ্কিতার উপর এই হামলা হয়। 

আরও পড়ুন, বহুদিন পর রবিবারের বাজার সস্তা, বাঙালির ব্য়াগ থেকে উঁকি দিচ্ছে মাছের লেজ

গত ১২ জানুয়ারি গ্রেফতার করা হয় মূল অভিযুক্ত সহ আরও একজনকে । পরিবারের সদস্য ও প্রতিবেশীদের দাবি, অভিযুক্তের কঠোর থেকে কঠোরতম শাস্তি হোক। এই দাবিতে ১২ জানুয়ারি সোনারপুর তেমাথা রাস্তায় তাঁরা অবরোধ করেন। পুলিশ সূত্রে খবর, গত ৭ জানুয়ারি স্কুলে যাচ্ছিল অঙ্কিতা। কিন্তু মাঝপথে এসে মনে পড়ে যে, মার্কশিট বাড়িতে ভুলে রেখে এসেছে। তাই মার্কশিট নিতে আবার বাড়ি ফেরে অঙ্কিতা। আর তখনই বাড়ির থেকে খানিক দূরে, স্কুলের  কাছাকাছি হামলা হয় অঙ্কিতার উপর। ধারাল অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় নবম শ্রেণীর এক ছাত্র। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, প্রেমে রাজি না হওয়ায় এই হামলা করা হয়েছিল অঙ্কিতার ওপর।

আরও পড়ুন, পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে দক্ষিণবঙ্গে বাড়বে তাপমাত্রা, উত্তরবঙ্গে বৃষ্টির সম্ভাবনা

 তবে তদন্ত এখনও জারি রয়েছে। নবম শ্রেণির ওই ছাত্র সহ আরও একজনকে পুলিশ  ১২ জানুয়ারি গ্রেফতার করেছে। একজনকে জুভিনাইল হোমে পাঠানো হয়েছে, অপরজন এখনও পুলিশি হেফাজতে রয়েছে। শনিবার অঙ্কিতার দেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার বিকেল চারটে নাগাদ বাড়িতে মৃতদেহ আনা হবে।