একেবারে বন্ধ না হলেও আপাতত গোটা দক্ষিণবঙ্গ জুড়েই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিই ভরসা। একই সঙ্গে হাওয়া অফিস জানিয়ে দিল, বৃষ্টির অভাবে সামান্য হলেও তাপমাত্রা বাড়তে পারে দক্ষিণবঙ্গে। 

আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাঞ্চলীয় অধিকর্তা সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ছত্তিশগড় থেকে চাঁইবাসা হয়ে দিঘা পর্যন্ত একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা অবস্থান করছে। এর পাশাপাশি মধ্যপ্রদেশ ও ছত্তিশগড়ের উপরে একটি ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে। যার ফলে অল্প পরিমাণে বলেও এ রাজ্যের বায়ুমণ্ডলে জলীয় বাষ্প ঢুকছে। এর প্রভাবে গোটা দক্ষিণবঙ্গ এবং উত্তরঙ্গেও বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি চলবে। 

আপাতত রাজ্যের কোথাওই ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা নেই। তবে উত্তরবঙ্গে আগামী চব্বিশ ঘণ্টায় সামান্য ঝড়, বৃষ্টি হলেও তা কমে যাবে। 

সঞ্জীববাবু জানিয়েছেন, যেহেতু আকাশে মেঘের পরিমাণ কমবে, তাই দক্ষিণবঙ্গে কিছুটা হলেও তাপমাত্রা বাড়তে পারে। এই মুহূর্তে নতুন করে এ রাজ্যের বায়ুমণ্ডলে কোনও নিম্নচাপ বা ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হওয়ার সম্ভাবনাও প্রায় নেই। তবে আগামী ২৯ তারিখ নাগাদ একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হতে পারে। তার আগে পর্যন্ত বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিই ভরসা গোটা রাজ্যে। 

এ দিন বর্ষার ঘাটতিও গোটা রাজ্যেই অনেকটা কমে এসেছে। এই মুহূর্তে দক্ষিণবঙ্গে বর্ষার ঘাটতির পরিমাণ ২৫ শতাংশ। আর গোটা রাজ্যে ২১ শতাংশ।