তৃণমূল ভবন এর সামনে তৃণমূল কর্মীদের অবস্থান বিক্ষোভ। শনিবার দুপুরে তৃণমূল ভবনের সামনে অবস্থানে বসেন তৃণমূল কর্মীদের একাংশ। তাদের বক্তব্য তারা মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে চান। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা না  বলা পর্যন্ত অবস্থান চালিয়ে যাবেন তারা। যদিও অল্প কিছুক্ষণ পরে তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্বের হস্তক্ষেপে অবস্থান তুলে নেন তৃণমূল কর্মীরা। সূত্রের খবর রাজ্যের তৃণমূল সভাপতি সুব্রত বক্সী অবস্থানরত তৃণমূল কর্মীদের পাঁচ সদস্যের সঙ্গে বৃহস্পতিবার বৈঠক করবেন। 

আরও পড়ুন, 'শুভেন্দু বিজেপিতে যোগ দিলেই ভাঙবে তৃণমূল সরকার', গর্জে উঠলেন অর্জুন সিং

 

 

দলের অন্দরে ক্ষোভ

২৩ টা জেলার ২৬০ জন তৃণমূল কর্মী এদিন তৃণমূল ভবনে আসেন। তৃণমূল ভবন এর সামনে হাতে প্ল্যাকার্ড নিয়ে অবস্থানে বসেন তারা। দলীয় কর্মীদের বক্তব্য তারা কাজ করতে পারছেন না ঠিকভাবে। তবে কাদের বিরুদ্ধে  তাদের অভিযোগ রয়েছে, সে সম্পর্কে সংবাদ মাধ্যমে পরিষ্কার করে জানাননি তারা। তবে দলের অন্দরে ক্ষোভের কারণে দলীয় দপ্তরের সামনে অবস্থানে বসেছেন বলে স্বীকার করে নিয়েছেন অবস্থানরত তৃণমূল কর্মীরা। 

আরও পড়ুন, 'জীবন থাকতে বিজেপিতে নয়', অর্জুন সিং-র 'স্বপ্নে' জল ঢাললেন সৌগত রায়

 

তৃণমূলের অস্বস্তি বাড়ালো

উত্তরবঙ্গ হোক কিংবা দক্ষিণবঙ্গ বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূল বিক্ষুব্ধ নেতাদের সংখ্যা বাড়ছে। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে দলীয় দপ্তরের সামনে দলের কর্মীদের অবস্থান তৃণমূলের বাড়তি অস্বস্তি বাড়ালো, সে কথা বলার অপেক্ষা রাখে না।