রবিবার সন্ধ্যে সাড়ে সাতটার সময় বেহালার শীলপাড়ায় তুবড়ি ফেটে মৃত্যু হল ৫ বছরের এক শিশুর। নিহত শিশুর নাম আদি দাস। এই ঘটনার পর নড়ে চড়ে বসে, পুলিশ প্রশাসন। কিন্তু কীকরে ঘটল এই দুর্ঘটনা, বাজি তৈরির ক্ষেত্রে কোনও  গাফিলতি ছিল কিনা, তা নিয়ে খতিয়ে দেখছে পুলিশ। এখনও অবধি  ২ জনকে গ্রেফতার করেছে স্থানিয় পুলিশ।

আরও পড়ুন, আপ লাইনে আগুনের ফুলকি, আতঙ্ক রবীন্দ্রসদন মেট্রো স্টেশনে

 দীপাবলির সন্ধ্যেয়, আদির আবদার রাখতেই, তুবড়ি জ্বালাচ্ছিলেন তার ঠাকুমা। আর তারপর হঠাৎ করে তুবড়ি ফেটে গিয়েই এই দুর্ঘটনার ঘটে। তুবড়ির খোলের মাটির ঢ্যালা ছিটকে গিয়ে  ৫ বছরের শিশু আদির গলায় লাগে। অত্য়াধিক পরিমানে ব্লিডিং হতে থাকে। তারপর তড়িঘড়ি করে রক্তাক্ত অবস্থায় ,আদিকে বিদ্যাসাগর হাসপাতালে  নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই তাকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয় । আর তারপরই বেহালায় নামে শোকের ছায়া। তবে এই ঘটনার ২৮ ঘণ্টার মধ্যেই নেমে এল নয়া মোড়।

আরও পড়ুন, আলোর উৎসবে কাটল সংঘাত, মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির কালীপুজোয় কাছাকাছি এলেন ধনকড় ও মমতা

এই মর্মান্তিক আদি দাসের মৃত্য়ুর পর,বাজি বিক্রেতা বরুণ রায় ও বাজি কারিগর বিজয় সর্দারকে  গ্রেফতার করেছে  পুলিশ।  বিস্ফোরক আইনে দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।