কথা রাখতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভোটপর্বে বিদ্যাসাগর কাণ্ডের সময়েই ঘোষণা করেছিলেন ফের বিদ্যাসাগর কলেজে বিদ্যাসাগর মূর্তি বসাবে রাজ্য সরকার। অবশেষে আগামী ১১ জুন দু'টি বিদ্যাসাগর মূর্তি বসতে চলেছে বিদ্যাসাগর কলেজে একটি আবক্ষ, অন্যটি পূ্র্ণ অবয়ব। 

মূর্তি উন্মোচনের আগে শিক্ষা দফতর ও বিদ্যাসাগর দ্বিশতবর্ষ উদযাপন কমিটি হেয়ার স্কুল প্রাঙ্গণে একটি সভার আয়োজন করা হবে। সভায় থাকবেন শহরের বিশিষ্টজন। সভার শেষে একটি পদযাত্রা করে বিদ্যাসাগর কলেজে যাওয়া হবে। মুখ্যমন্ত্রী পুরোভাগে থাকবেন এই পদযাত্রার।

সূত্রের খবর এই মিছিলের কারণে আগামী ১১ জুন ও ১২ জুন বিদ্যাসাগর কলেজে পরীক্ষার দিনক্ষণও বদলাবে। ১১ ও ১২ জুনের বদলে দ্বিতীয় সেমেস্টারের প্র্যাকটিকল পরীক্ষা হবে ১৩ ও ১৪ জুন।

লোকসভা ভোটের শেষদফার আগে অমিত শাহ-র রোড শো-কে ঘিরে উত্তাল হয় কলকাতা। দুই দলের সংঘর্ষ চূড়ান্ত আকার ধারণ করে বিদ্যাসাগর কলেজের সামনে এসে। ভাঙা হয় বিদ্যাসাগরের মূর্তি। তৃণমূল-বিজেপি অভিযোগ এবং পাল্টা অভিযোগ চলতেই থাকে। নরেন্দ্র মোদী পঞ্চধাতুর বিদ্যাসাগর মূর্তি দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন। রাজ্য সরকার সেই মূর্তি নেবে না বলে সাফ জানিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বরং ভোট পরবর্তী সাংবাদিক সম্মেলন থেকে বেশ কয়েকটি মূর্তি গড়ার পরিকল্পনার কথা জানান। এবার সেই পরিকল্পনারও বাস্তবায়ন চলছে।

তবে এবারও বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না। পূর্বপরিকল্পিত পরীক্ষার রুটিন হঠাৎ রাজনৈতিক কারণে বদলে ফেলা নিয়েও নানা মহলে উঠছে প্রশ্ন। এই প্রসঙ্গে জিজ্ঞেস করা হলে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, "নানা কারণেই পরীক্ষার দিনবদল হতে পারে।"