বাগুইহাটির বহুতলের ছাদের উপরে তিন বন্ধু মিলে বসিয়েছিল মদিরা পানের আসর। আর সেখান থেকেই এক  যুবককে ধাক্কা মেরে ফেলা হল। আহত যুবকের নাম প্রশান্ত রায়। অভিযোগ উঠেছে প্রশান্তেরই বন্ধুদের বিরুদ্ধেই। ইতিমধ্য়েই গ্রেফতার করা হয়েছে যুবকের বন্ধু ও বান্ধবীকে। আশঙ্কজনক অবস্থায় ওই যুবককে এই মুহূর্তে ভর্তি করা হয়েছে আর জি কর হাসপাতালে। কেন বা কী কারণে এমন ঘটনা ঘটল, তার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। 

আরও পড়ুন, ডাবল সেঞ্চুরির পথে পেঁয়াজ, কলকাতার পাঁচটি বাজারে বন্ধ হতে পারে বিক্রি

সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার বাগুইআটির অর্জুনপুর এলাকার একটি বহুতলে তিন বন্ধুর মদের আসর বসে। প্রশান্ত রায়, দেবাশিষ রায় ও তানিয়া মণ্ডল নামে তিন বন্ধু উপস্থিত ছিল সেই আসরে। অভিযোগ, মদের আসরেই তিন বন্ধুর মধ্যে ঝামেলা বাধে। সেই মুহূর্তে দেবাশিস রায় ধাক্কা মারে প্রশান্ত রায়কে। ধাক্কার মারার ফলেই ছাদ থেকে নীচে পড়ে যান প্রশান্ত।

আরও পড়ুন, বাগবাজার ঘাটে ভাসছে তরুণীর বস্তাবন্দি দেহ, হাতের ট্যাটুই তদন্তের সূত্র

এরপর প্রশান্ত নামের ওই যুবককে রক্তাক্ত অবস্থায়  উদ্ধার করেন স্থানীয়রা।  আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে ভর্তি করা হয় আরজিকর হাসপাতালে । এই ঘটনায় প্রশান্ত রায়-র স্ত্রী বাগুইআটি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন । আর সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই বুধবার রাতে অভিযুক্ত দেবাশিস রায় ও তানিয়া মণ্ডলকে গ্রেফতার করে বাগুইআটি থানার পুলিস। তবে এখনও আসল কারণ জানা যায়নি। পুরো ব্য়াপারটিই খতিয়ে দেখছে পুলিশ।